ঢাকা, সোমবার 7 January 2019, ২৪ পৌষ ১৪২৫, ৩০ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

৪৭ সদস্যের মন্ত্রিসভা ॥ ৩১ জনই নতুন

স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন সরকার শপথ গ্রহণ করবে আজ সোমবার। তবে এবারই প্রথম শপথ গ্রহণের আগেই মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী হিসেবে যারা শপথ নেবেন তাদের নাম ঘোষণা করেছে সরকার। তবে এবার শেখ হাসিনার নতুন মন্ত্রীসভাকে চমক বলছেন অনেকে।
গতকাল রোববার মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সচিবালয়ে ব্রিফিং করে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ও তাদের মন্ত্রণালয় কোনটি হবে সেটি প্রকাশ করেছেন। তবে এবারের মন্ত্রিসভায় অনেক নতুন মুখের পাশাপাশি ২০০৮ সালের নির্বাচনের পর গঠিত মন্ত্রিসভায় ছিলেন এমন অনেকেও স্থান পেয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মোট ৪৭ জন এবারের মন্ত্রিসভায় আসছেন বলে সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব। তিনি জানিয়েছেন এবারের মন্ত্রিসভায় ৩১ জন নতুনভাবে এসেছেন।
মন্ত্রী হচ্ছেন যারা: আকম মোজাম্মেল হক (মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক), ওবায়দুল কাদের (সড়ক পরিবহন ও সেতু), মো: আব্দুর রাজ্জাক (কৃষি), আসাদুজ্জামান খান (স্বরাষ্ট্র), হাছান মাহমুদ (তথ্য), আনিসুল হক (আইন, বিচার ও সংসদ), আহম মুস্তফা কামাল (অর্থ), মো. তাজুল ইসলাম (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়), ডা: দীপু মনি (শিক্ষা), একে আব্দুল মোমেন (পররাষ্ট্র), এম এ মান্নান (পরিকল্পনা), নুরুল মজিদ হুমায়ুন (শিল্প), গোলাম দস্তগীর গাজী (বস্ত্র ও পাট), জাহিদ মালেক (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ), সাধন চন্দ্র মজুমদার (খাদ্য), টিপু মুনশি (বাণিজ্য), নুরুজ্জামান আহমেদ (সমাজকল্যাণ), শ ম রেজাউল করিম (গৃহায়ন ও পূর্ত), মো. শাহাব উদ্দিন (পরিবেশ ও জলবায়ু), বীর বাহাদুর (পার্বত্য), সাইফুজ্জামান চৌধুরী (ভূমি), নুরুল ইসলাম সুজন (রেলপথ), স্থপতি ইয়াফেস ওসমান (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি) ও মোস্তফা জব্বার (ডাক ও টেলিযোগাযোগ)।
প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন যারা: কামাল আহমেদ মজুমদার (শিল্প), ইমরান আহমেদ, (প্রবাসী), জাহিদ আহসান রাসেল (যুব ও ক্রীড়া), নসরুল হামিদ (বিদ্যুৎ), আশরাফ আলী খান খসরু (মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ), মন্নুজান সুফিয়ান (শ্রম ও কর্মসংস্থান), খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (নৌ-পরিবহন), জাকির হোসেন (প্রাথমিক ও গণশিক্ষা), শাহরিয়ার আলম, (পররাষ্ট্র), জুনাইদ আহমেদ পলক (তথ্য ও যোগাযোগ), ফরহাদ হোসেন (জনপ্রশাসন), স্বপন ভট্টাচার্য (স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়), জাহিদ ফারুক (পানি সম্পদ), মো: মুরাদ হোসেন (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ), শরীফ আহমেদ (সমাজকল্যাণ), কে এম খালিদ (সংস্কৃতি বিষয়ক), ডা: এনামুর রহমান (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা), মো. মাহবুব আলী (বেসামরিক বিমান) ও শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ (ধর্ম বিষয়ক)।
উপমন্ত্রী হচ্ছেন যারা: বেগম হাবিবুন নাহার (পরিবেশ ও জলবায়ু), একেএম এনামুল হক শামীম (পানি সম্পদ) ও মহিবুল হাসান চৌধুরী (শিক্ষা)
প্রধানমন্ত্রীর ছয় মন্ত্রণালয়
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই থাকছে ছয় মন্ত্রণালয়। গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টায় নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।
মন্ত্রিপরিষদ সচিবের ঘোষণা থেকে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর অধীনে থাকছে চার মন্ত্রণালয় ও দুই বিভাগ। সেগুলো হলো- মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়।
নতুন মন্ত্রিপরিষদ শপথ নেবে আজ সোমবার। এরই মধ্যে নতুন মন্ত্রিসভায় যারা জায়গা পেতে যাচ্ছেন তাদের শপথগ্রহণের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।
এর আগে ২০০৯ সালে নবম সংসদ ও ২০১৪ সালে দশম সংসদের পর এবার টানা তৃতীয় মেয়াদে সংসদ নেতা নির্বাচিত হলেন শেখ হাসিনা। তিনি ১৯৯৬ সালেও সপ্তম সংসদেও সংসদ নেতার ভূমিকায় ছিলেন।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গঠিত মন্ত্রিসভায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগসহ বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন।
বাংলাদেশে একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর সরকারের যে নতুন মন্ত্রিসভা গঠিত হতে যাচ্ছে সেখানে নেই আওয়ামী লীগ ও এর নেতৃত্বাধীন জোটের প্রবীণ নেতাদের নাম। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানিয়েছেন, এবারের মন্ত্রিসভায় নতুন করে আসছেন ৩১ জন নতুন নেতা। তার দেয়া তালিকা অনুযায়ী বিদায়ী মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়েছেন  ৩৬ জন।
যদিও টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীরা নির্বাচনের আগেই পদত্যাগ করেছিলেন। এর মধ্যে ইয়াফেস ওসমান ও মোস্তফা জব্বার নতুন মন্ত্রীসভাতেও স্থান পেয়েছেন।
তবে এ মন্ত্রীসভায় ঠাঁই হয়নি আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিম, নুরুল ইসলাম নাহিদ, ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আসাদুজ্জামান নুর ও মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার।
মন্ত্রী হতে পারছেন না শ্রমিক ও সড়ক আন্দোলনে বার বার আলোচনায় উঠে আসা শাজাহান খানও। নানা ইস্যুতে বিভিন্ন সময়ে শিরোনাম হওয়া খাদ্য মন্ত্রী কামরুল ইসলামেরও আর মন্ত্রিসভায় থাকা হচ্ছেনা।
আওয়ামী লীগের শরীক দলের নেতা রাশেদ খান মেনন, আনোয়ার হোসেন মঞ্জু ও হাসানুল হক ইনু নতুন মন্ত্রীদের তালিকায় নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ