ঢাকা,মঙ্গলবার 8 January 2019, ২৫ পৌষ ১৪২৫, ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

শ্রীনগরে মৃৎশিল্পে দুর্দিন

শ্রীনগরে মৃৎশিল্পে কাজ করছে কর্মীরা

মোঃ জাকির লস্কর, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : শ্রীনগরে পৈতৃক পেশায় কোনো রকমে টিকে আছেন মৃৎশিল্পীরা। বিকল্প কোনো পেশা বা অন্য কোনো পেশার সঙ্গে মানিয়ে নিতে না পেরে প্রতিকূলতাকে মোকাবিলা করে তারা টিকে আছে। তাদের জীবনে নেমে এসেছে অন্তহীন দুর্দশা। এক সময়ে মাটি শিল্পের ব্যাপক চাহিদা থাকলেও আধুনিকতার ছোঁয়ায় এ শিল্প বিলুপ্তির পথে। ফলে এ শিল্পের সাথে জড়িত শিল্প পরিবারগুলোর দূর্দশার শেষ নেই। মেলামাইনের কারণে মাটি শিল্প বিলুপ্ত হতে চললেও এ ঐতিহ্যবাহী শিল্পকে ধরে রেখেছে শ্রীনগর উপজেলার কয়েকটি গ্রামের কুমার। এক সময় মাটির তৈরি পাতিল, কলস, থালা, সামগ্রীর কোন বিকল্প ছিল না। সে সময় মাটি শিল্প ছাড়া  কোন কিছু চিন্তা করা যেত না। চাহিদার আলোকে শ্রীনগরে গড়ে ওঠে ১৫/২০টি কুমারপাড়া। শ্রীনগর ষোলঘর বাজার পাশ দিয়ে পথচারী যাওয়ার সময় মাটি তৈরি হাতি, ঘোড়া, কলস, পাতিল এখনও দেখতে পায়। এখন আর সেদিন নেই। কালক্রমে সময়ের সাথে সাথে পাল্টেছে মাটি তৈরি সামগ্রী ব্যবহার। মেলামাইন ও ছিলবার দখল করছে তার স্থান। এক সময়ে শ্রীনগরে উৎকৃষ্ট মানের সামগ্ররী কলস, পাতিল, থালা ইত্যাদি সহ নিত্য ব্যবহার্য সামগ্রীর সুনাম ছিল দেশ জুড়ে। আধুনিকতার ছোঁয়া মেলামাইন ও ছিলবার তৈরি হওয়ায় কদর কমেছে এ শিল্পের তৈজষপত্রের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ