ঢাকা,মঙ্গলবার 8 January 2019, ২৫ পৌষ ১৪২৫, ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নলছিটিতে চুরির অপরাধে ইউনিয়ন পরিষদে দুই দিন আটকে রেখে যুবককে নির্যাতন

ঝালকাঠি সংবাদদাতা : নলছিটিতে চুরি করার অপরাধে উপজেলার নাচনমহল ইউনিয়ন পরিষদে সেলিম বেপারী (২০) নামে এক যুবককে আটকে রেখে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। গত শনিবার যুবককে ধরে এনে ইউনিয়ন পরিষদের দোতলার ১টি কক্ষে নির্যাতন চালানো হয় বলে জানা যায়। পুলিশ খবর পেয়ে রোববার যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে নলছিটি থানায় নিয়ে আসে। সেলিম নলছিটির নাচনমহল ইউনিয়নের দক্ষিণ ডাবরা গ্রামের সুলতান বেপারীর ছেলে।এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সাবেক মেম্বর নান্নু সিকদারের ভাইয়ের ট্রলার ও ভবানীপুর বাজারে চুরি করার অপরাধে যুবককে নির্যাতন করেছে নান্নু সিকদার ও চুরি যাওয়া দোকান মালিকরা। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নিয়ে যাবার সময় যুবকের শরীরে পিটানোর দাগ দেখা গেছে। এ বিষয়ে নান্নু সিকদার বলেন, গত ৪ জানুয়ারি দিবাগত রাতে ভবানিপুর বাজারে কামরুলের স-মিল থেকে লোহার চাকা এবং মনির মোল্লার চায়ের দোকান থেকে গ্যাস সিলিন্ডার ও গ্যাসের চুলা এবং আমার ভাই চুন্নু সিকদারের ট্রলার শিকল কেটে চুরি করে নিয়ে যায় চোর। চুরি যাওয়া মালামাল আমরা ৫ জানুয়ারি সকালে খোঁজাখুঁজির পর ঝালকাঠির পোনাবালিয়া ইউনিয়নের দিয়াকুল গ্রামের একটি খালে ট্রলারসহ উদ্ধার করি।  বিষয়টি নাচনমহল ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমানকে জানালে সে সেলিমকে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে যেতে বলে। নান্নু আরো জানায়, চুরি যাওয়া মালামালসহ সেলিমকে নলছিটি নিয়ে এলে জনসাধারণ তাকে মারধর করেছে। তবে তার নখে সুঁই ঢুকিয়ে লোহার রড দিয়ে মারার অভিযোগ সত্য নয়। ইউনিয়ন পরিষদে নেয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদ করে থানায় না পাঠিয়ে ঔষধপত্র দিয়ে সেলিমকে পরিষদের দোতলার একটি কক্ষে রেখে যেতে বলে। তাই তাকে সেখানে রেখে ঐদিনই আমরা সেখান থেকে চলে যাই। এ বিষয়ে যুবক সেলিম বেপারী থানায় এসে জানায় আমাকে নান্নু মেম্বর, তার ছেলে রিপন, চুরি হওয়া স-মিল এবং দোকানের মালিক কামরুল ও মনির মোল্লা পরিষদের রুমে আটকে রেখে নির্যাতন করেছে। আমার পায়ের আঙ্গুলের নখ উঠিয়ে হাতের আঙ্গুলে সুঁই ঢুকিয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়েছে। এ বিষয়ে নলছিটি থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানান, আমি রোববার খবর পেয়েই পুলিশ পাঠিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষ থেকে যুবক সেলিমকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ চুরির সাথে সে একা নয় একটি সিন্ডিকেট আছে। চুরির ঘটনায় দোকান ও স-মিল মালিকদের ডাকা হয়েছে। তারা মামলা দিলে জিজ্ঞাসাবাদ করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে নাচনমহল ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান জানান, সেলিম এ চুরির সাথে জড়িত। তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ