ঢাকা, বুধবার 9 January 2019, ২৬ পৌষ ১৪২৫, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সীতাকুণ্ডে এবার শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে আবারো ডাকাতের ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছে ইমরান হোসেন রিয়াদ (২৮) নামের এক শিক্ষক। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, সোমবার রাতে বাড়বকুণ্ড রেল ষ্টেশনের পাশে নিজ বাসার সামনে ৭/৮জন মুখোশধারী দুর্বৃত্ত ছুরি দিয়ে কুপিয়ে রিয়াদকে হত্যা করে। স্থানীয় সূত্রে আরও জানাগেছে, দুর্বৃত্তরা রাত ১২টার দিকে রিয়াদের ঘরের সামনে লাইটগুলো ভেঙ্গে আতংক সৃষ্টি করে। এসময় রিয়াদ ও তার বাবা ঘর থেকে বের হলে দুর্বৃত্তরা রিয়াদকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিযে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা শিক্ষক রিয়াদকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। গত সপ্তাহে সীতাকুণ্ড পৌরসদরে প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাত করে খুন হয়েছিলো স্থানীয় যুবলীগের ওয়ার্ড সভাপতি দাউদ সম্রাট। এ ঘটনা রেশ না কাটতেই আবারো চুরিকাঘাতে শিক্ষকখুনের ঘটনায় আইন শৃংখরার চরম অবনতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সীতাকুণ্ড উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন বাড়বকুণ্ড সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে রেলওয়ে কলোনীএলাকায় সোমবার রাত দেড়টার সময় শিক্ষক খুনের এ ঘটনা টিঘটেছে। নিহত ইমরানের ওই এলাকার রেলওয়ে কলোনীর একটি বাসায় বাবা মাকে নিয়ে থাকতো। তার গ্রামের বাড়ি ফেনী দক্ষিণ ধনিয়া এলাকায়। সে সীতাকুণ্ড কামিল মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা নুরুন্নবী জানান ইমরান আমাদের মাদ্রাসার খণ্ড কালিন ইংরেজী শিক্ষক ছিলেন। সে তার আগে শীতলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষককতা করতেন বালে জানা যায়। বাড়বকুণ্ড স্কুলের পাশে তার একটি কোচিং সেন্টারও ছিল। এদিকে একের পর এক খুন ও ডাকাতির ঘটনায় সীতাকুণ্ডে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।  ডাকাতি ও খুনের ঘটনায় জড়িতরা প্রকাশ্যে ঘুরলেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার না করায় জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। ওই এলাকার বাসিন্দা আবদুছ সবুর জানান, রাত দেড়টায় বাসায় আসার সময় নিজ বসতঘরের সামনে ৭ থেকে ৮ জন মুখোশধারী লোক ইমরানকে পেটে চুরিকাঘাত করে ফেলে চলে যায়।  পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেলকলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন। সীতাকুণ্ড মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আবদুল হালিম বলেন, রাতে কয়েকজন লোক ওই শিক্ষককে চুরিকাঘাতকরেছে। পরবর্তীতে সে মারা যায়। তবে কী কারণে এই খুনেরঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বাড়বকুণ্ড ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাদাকাত উল্লাহমিয়াজি বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ডাকাতির সাথে জড়িতদের সে হয়তো ছিনে ফেলায় ওই ডাকাতরা তাকে ছুরিকাঘাত করে খুন করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ