ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 January 2019, ২৭ পৌষ ১৪২৫, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

রাখাইন পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের উদ্বেগ শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান

সংগ্রাম ডেস্ক : মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য রাখাইন পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মিয়ানমারে জাতিসংঘের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান কর্মকর্তা কুট ওসবি। এ মাসের শুরু থেকে ওই রাজ্যে সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহী আরাকান আর্মির লড়াই চলছে। তাতে কমপক্ষে সাড়ে চার হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। আরাকান আর্মির হামলায় ১৩ পুলিশ সদস্য নিহত হওয়ার পর সেখানকার পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সেনাপ্রধানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন নেত্রী অং সান সুচি। তার প্রশাসন সেনাবাহিনীর প্রতি নির্দেশ দিয়েছে বিদ্রোহীদের গুঁড়িয়ে দিতে। এর প্রেক্ষিতে কুট ওসবি সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সব বেসামরিক মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং মানবাধিকারের প্রতি সম্মান দেখাতে। শীর্ষকাগজ
জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কুট ওসবি সব পক্ষের প্রতি শান্তিপূর্ণ একটি সমাধান বের করতে আহ্বান জানিয়েছেন। সহিংসতায় আক্রান্ত সব মানুষের জন্য মানবিক সহায়তা নিশ্চিত করারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
উল্লেখ্য, আরাকান আর্মি একটি বিদ্রোহী গ্রুপ। তারা বৌদ্ধপ্রধান রাখাইন রাজ্যে অধিকতর শায়ত্তশাসন চায়। ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে রোহিঙ্গাদের ওপর শুরু হয় নৃশংস নির্যাতন। এর ফলে বাধ্য হয়ে কমপক্ষে ৭ লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন।
এরপর নতুন করে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে গত সোমবার বৈঠক হয়েছে সরকার ও সেনাবাহিনীর নেতৃবৃন্দের মধ্যে। ওই বৈঠকে প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টের অফিস থেকে ‘সন্ত্রাসীদের গুঁড়িয়ে দিতে’ সেনাবাহিনীকে নিন্দেশনা দেয়া হয়েছে। সরকারের এক মুখপাত্র এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন।

ভারতে ১৪ বাংলাদেশী আটক
অবৈধভাবে অবস্থান করার অভিযোগে ভারতে ১৪ বাংলাদেশীকে আটক করা হয়েছে। আহমেদাবাদের দানিলিমদা এলাকায় সুয়েজ ফার্ম নামের একটি প্রতিষ্ঠান থেকে তাদেরকে মঙ্গলবার আটক করেছে অপরাধ বিভাগের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ (এসওজি)। টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন এ খবর দিয়েছে। শীর্ষকাগজ।
এসওজি বিবৃতিতে ওই ১৪ জনের নাম প্রকাশ করেছে। তারা হলো জুলফিকার রহমান (২৪), আখতারুল মজিদ (২৮), মতিয়ার ফজল গাজি (৩৪), মোহাম্মদ হামিম আবদুল হক ফকির (২৬), ফকির আজিজ শেখ (৪৫), আশরাফুল মোল্লা (৩৫), আরিফ শেখ (৩০), মোহাম্মদ আনিস (৫১), ফারুক মোল্লা (২৪), ইব্রাহিম শেখ (২৫), জামাল আসাফ সাদর (৩০, মোহাম্মদ লিয়াকত খান (২৫), মোহাম্মদ আলামিন (২৪) ও সাগর মোড়ল (২৫)। তারা শ্রমিক হিসেবে কাজ করছিলেন  এবং দলবদ্ধ হয়ে অবস্থান করছিলেন নারোদা, ওধ্বাভ ও ভাতভা এলাকায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ