ঢাকা, শুক্রবার 11 January 2019, ২৮ পৌষ ১৪২৫, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিপিএলে যুক্ত হচ্ছে আজ আলট্রা এজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : বিপিএলের ষষ্ঠ আসর দিয়ে প্রথমবারের মতো ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএস’র সংযোজন দেখিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। কিন্তু সেখানে ছিলো না আলট্রা এজ, স্নিকোমিটার ও হটস্পটের মতো উন্নতি প্রযুক্তির ব্যবহার। অগত্যা গেল ৮ ম্যাচে শুধুই আলট্রা মেশিন দিয়ে কাজ চালাতে হয়েছে। তাতে জটিলতাও দেখা গেছে বিস্তর। কোন ব্যাটসম্যান এজ হয়ে আউট হলে কিংবা এলবি’র ফাঁদে পড়ে আউট হলে তা সঠিক কী না সেটা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যেত। সেই সন্দেহ দূরীকরণে অবশেষে আজ শুক্রবার  থেকে ডিআরএসে যুক্ত হচ্ছে আলট্রা এজ, স্নিকোমিটার ও হট স্পট। শেখ সোহেল বলেন, ‘শুক্রবারের ম্যাচ থেকেই আপনারা আলট্রা এজ, স্নিকোমিটার ও হটস্পট দেখতে পাবেন। আমরা আগেও বলেছিলাম যে দুই তিন দিন সময় দিতে হবে। কারণ আমরা সবকিছুই পরিপূর্ণ করেছি। এটা পরিপূর্ণ হয়ে যাবে।’

জটিলতার কথা বলছিলাম। কি কি জটিলতা দেখা গেছে সেটা এবার স্পষ্ট করছি। গেল ৬ জানুয়ারি সিলেট সিক্সার্স ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও সিলেট সিক্সাসের মধ্যকার ম্যাচে নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝিতে ওয়ার্নার ও তৌহিদ হৃদয় ছিলেন উইকেটের একই প্রান্তে। অন্য প্রান্তের উইকেট ভাঙার পর কে রান আউট সেটি জানার জন্য থার্ড আম্পায়ারের শরণাপন্ন হতে হয়।

রিপ্লেøতে দেখা যায়, ওয়ার্নার পপিং ক্রিজে ঢুকলেও তৌহিদ হৃদয় সামনে মুখ করে পেছনে হাত দিয়ে ব্যাট ক্রিজে রেখে দিয়েছেন। এখানে বাররার দেখার চেস্টা করা হচ্ছিলো তার ব্যাট এয়ারে আছে কী না। তবে তা সত্যিই ছিলো কী না নিশ্চিত না হয়ে থার্ড আম্পায়ার শরফুদ্দৌলা ওয়ার্নারকেই আউট বলে সিদ্ধান্তু দিলেন।

এমনকি মঙ্গলবারের ঢাকা ডায়নামাইটস ও খুলনা টাইটান্সের ম্যাচেও স্নিকো মিটারের প্রয়োজনীতা বোধ হলো তীব্রভাবে। তৃতীয় ওভারে ডেভিড ওয়াইসের লেগস্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারিটি জাজাই খেলতে গেলে কট বিহাইন্ডের আবেদন তোলে খুলনার খেলোয়াড়রা। কিন্তু আম্পায়ার তা ওয়াইড বলে ঘোষণা দেন। রিভিউ শেষে সেই ওয়াইডই থাকলো। সিদ্ধান্ত গেল ঢাকা ডায়নামাইটসের পক্ষে!

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ