ঢাকা, শনিবার 12 January 2019, ২৯ পৌষ ১৪২৫, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নারায়ণগঞ্জে দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৩ গ্রাম রণক্ষেত্র

সংগ্রাম ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে তিন গ্রামবাসীর মধ্যে কয়েক দফা রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার উপজেলার খাগকান্দা ইউনিয়নের চম্পক নগর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে ৩টি গ্রাম রণক্ষেত্র পরিণত হয়। এ সময় ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে  দেড় শতাধিক ঘরবাড়ি। শীর্ষকাগজ
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ২ দিন আগে স্থানীয় স্কুলের ৯ম  শ্রেণির ছাত্র সিয়ামকে কাকাইল মোড়ার লোকজন মারধর করে। এ নিয়ে গতকাল শুক্রবার সকাল ৯ টায় চম্পক নগরের মঞ্জুরের বাড়িতে বিচার বসে। বিচারে তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দা, টেটা, ছুরি, বল্লম নিয়ে একে অপরের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। সকাল ৯টায় শুরু হয়ে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে সকাল ১১টা পর্যন্ত।
সংঘর্ষে কাকাইল মোড়া ও বাহেরচর পক্ষে নেতৃত্বে দেন লোকমান মেম্বার এবং চম্পক নগরের পক্ষে নেতৃত্বে দেন মোসলেম মেম্বার। সংঘর্ষে আহতদের আড়াইহাজারসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
 মোসলেম মেম্বার জানান, সংঘর্ষ চালাকালে কাকাইল মোড়া ও বাহের চর গ্রামের ৫/৬ শতাধিক লোক লোকমান মেম্বার ও তোফাজ্জলের নেতৃত্বে চম্পক নগর গ্রামে এসে তা-ব চালায়। এতে দেড় শতাধিক ঘরবাড়ি ভাংচুর করা হয়। চম্পক নগরের বাজার থেকে দোকান পাট লুট করে নিয়ে গেছে।
মোসলেম মেম্বার আরো জানান, চম্পক নগর গ্রামবাসীর অর্ধ কোটি টাকার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, ক্ষতিগ্রস্তদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে বাতাস।
আড়াইহাজার থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মূলহোতা লোকমান মেম্বারকে গ্রেপ্তারের চেষ্ঠা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ