ঢাকা, শুক্রবার 18 January 2019, ৫ মাঘ ১৪২৫, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নাগরিকত্ব বিল নিয়ে উত্তাল আসাম

১৭ জানুয়ারি, ডেকান হেরাল্ড : ভারতের নাগরিকত্ব (সংশোধনী) আইন-২০১৬ নিয়ে বিজেপি জোট থেকে সরে যাওয়ার পর নতুন করে এ নিয়ে সরব হয়েছে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল অসম গণপরিষদ (এজিপি)। দলটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ বিলের প্রতিবাদে অনশন ধর্মঘটে যাবে তাদের এমএলএ বা বিধায়কেরা।

সোমবার এজিপি জানিয়েছে, আগামী ২৪ জানুয়ারি তাদের ১২ জন বিধায়ক ১০ ঘণ্টার অনশন ধর্মঘট পালন করবেন। নাগরিকত্ব বিল নিয়ে আন্দোলনকারী অন্য দলগুলোর সাথে যোগ দেবেন তারা। নাগরিকত্ব বিল নিয়ে আপত্তি জানিয়ে এরই মধ্যে আসামে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) জোট থেকে এরই মধ্যে বেরিয়ে গেছে এজিপি। লোকসভায় বিলটি উত্থাপন ও পাসের আগের দিন গত ৭ জানুয়ারি মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন দলটির তিন সদস্য। বিলটিতে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ভারতে প্রবেশকারী অমুসলিমদের (হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি, শিখ ও খ্রিষ্টান সম্প্রদায়) নাগরিকত্বের বিধান রাখা হয়েছে। বিরোধীরা বলছে, এই আইনটি ১৯৮৫ সালের আসাম অ্যাকর্ডের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। ১৯৮৫ সালের আসাম অ্যাকর্ডে বলা হয়েছিল, ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ থেকে যারা আসামে বাস করছে, তারাই শুধু নাগরিকত্ব পাবে। কিন্তু বিল নিয়ে আসামে তীব্র প্রতিবাদ রয়েছে।

রাজ্যের ছয়টি জাতিগত গোষ্ঠীকে শিডিউল ট্রাইবস (তফশিলি উপজাতি) হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করে গত ১১ জানুয়ারি ধর্মঘট পালন করছে স্থানীয় আদিবাসী সংগঠনগুলো। আসামের যে ছয়টি জনগোষ্ঠীকে সরকার তফশিলি উপজাতির মর্যাদা দিতে চাইছে সেগুলো হলো- আহোম, মটক, মরান, চুটিয়া, কোচ-রাজবংশী এবং আদিবাসী তথা চা সম্প্রদায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ