ঢাকা, রোববার 03 February 2019, ২১ মাঘ ১৪২৫, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

জাপানকে হারিয়ে এশিয়ান ফুটবলের সেরা কাতার

ইতিহাস গড়লো কাতার। প্রথমবারের মতো এশিয়ান কাপ ফুটবলের শিরোপা জিতেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। চারবারের চ্যাম্পিয়ন জাপানকে ৩-১ গোলে হারিয়ে এশিয়ান ফুটবলের সিংহাসনে বসেছে ২০২২ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক দেশটি। কাতারের মতো দেশে বিশ্বকাপ আয়োজক কেন- ২০২২ সালের ফুটবল মহাযজ্ঞের আয়োজক হিসেবে তাদের নাম ঘোষণার পর যারা প্রশ্নটি তুলেছিলেন, তাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো দেশটি। এশিয়ার কাপের শিরোপা জিতে ফুটবলে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্বের জানান দিয়েছে কাতার। বিশ্বকাপে নিয়মিত অংশ নেওয়া জাপানকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ফুটবলের নতুন শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হলো তারা। সংযুক্ত আরব আমিরাতে এই ইতিহাস গড়ার পথে সবচেয়ে বড় অবদান আলমোয়েজ আলির। ২২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড শিরোপা জেতার পথে করেছেন ৯ গোল। আবুধাবির জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে জাপানের বিপক্ষে ১২ মিনিটে তার লক্ষ্যভেদেই এগিয়ে যায় কাতার। আর গোলটিও ছিল দেখার মতো। বক্সের ভেতর থেকে বাইসাইকেল কিকে করেছেন অনেকদিন স্মৃতিতে সাজিয়ে রাখার মতো গোল। আলির লক্ষ্যভেদের পর ২৭ মিনিটে আব্দুল্লাজিজ হাতেমের গোলে শিরোপার স্বপ্ন দেখতে থাকে কাতার। হাতেমের গোলটিও ছিল দুর্দান্ত। বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের বাঁকানো শটে করেন চমৎকার এক গোল। তাতে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে কাতার। বিরতির পর ম্যাচে ফিরতে মরিয়া জাপান একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে কাতারের রক্ষণে। কিন্তু গোটা টুর্নামেন্টে গোলমুখের দরজা বন্ধ রাখা মধ্যপ্রাচ্যের দলটির রক্ষণ কিছুতেই ভাঙতে পারছিল না জাপান। অবশেষে ৬৯ মিনিটে বাধার দেয়াল ভেঙে তাকুমি মিনামিনোর গোলে খেলার ফেরায় ইঙ্গিত দেয় ‘সামুরাই ব্লু’। যাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিযোগিতায় প্রথম গোল হজম করে ফেলিক্স সানচেসের দল। জাপানের আশা জাগালেও ৮৩ মিনিটে ফাইনাল নিজেদের করে নেয় কাতার। ভিএআর-এর সাহায্যে পাওয়া পেনাল্টি কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করে প্রথমবারের মতো কাতারের এশিয়ান কাপের শিরোপা নিশ্চিত করেন আকরাম আফিফ। কাতার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি এই অর্জনকে উল্লেখ করেছেন ‘ঐতিহাসিক’ হিসেবে, ‘খুব গর্বিত এই দলকে নিয়ে, ভীষণ গর্বিত এই অর্জনে। এটা আমাদের জন্য ঐতিহাসিক মুহূর্ত, আলহামদুলিল্লাহ... শুধু এটুকুই বলব। আমাদের ছেলেরা আমাদের গর্বিত করেছে।’ তা তো বটেই। চারবারের চ্যাম্পিয়ন জাপানকে হারিয়ে শিরোপা জয়, তাও আবার নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবার, কাতারের গর্ব করাটাই স্বাভাবিক। ইন্টারনেট। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ