ঢাকা, রোববার 03 February 2019, ২১ মাঘ ১৪২৫, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সবুজে ভরা সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীন

সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীন

আব্দুর রাজ্জাক রানা:

খুলনা মহানগরীর দৌলতপুরের পাবলা সবুজ সংঘের বিশাল মাঠের পাশেই নির্মিত ‘সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীন’। এ মসজিদের সামনের জায়গায় ফুল, ফল, সব্জি আর ঔষধি গাছে ভরপুর। মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লীদের প্রাণ ভরে যায় এ মসজিদের সবুজের সমারোহ দেখে। মসজিদ ও মসজিদের প্রাঙ্গণ মিলে ৩৫শতক জমি রয়েছে। আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত দ্বিতল এ মসজিদে আগত মুসল্লীদের সংখ্যা অনেক। এলাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নামাজ আদায় করতে এ মসজিদে আসেন বিপুল সংখ্যক মুসল্লী।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মসজিদ প্রাঙ্গণে শোভা বর্ধন করছে ব্রুকলি (সবুজ ফুলকপি), ক্যাপসিক্যাম, রেড ক্যাবেজ (লাল পাতাকপি), লেটুস, গোল আলু, বেগুন, টমেটো, ধনিয়া পাতা, সরিষা। এছাড়াও শোভা বর্ধনকারী ফুলের মধ্যে রয়েছে ডালিয়া, গাঁদা, কাটা মুকুট, রঙ্গনসহ বিভিন্ন ধরনের ফুলের গাছ। রয়েছে বিভিন্ন জাতের পাতা বাহারের গাছ। 

অন্যদিকে ঔষধি হিসেবে ব্যবহারের জন্য রয়েছে সাদা ও কালো তুলশী গাছ। সবমিলিয়ে মসজিদ প্রাঙ্গণটি সবুজের সমারোহে সমৃদ্ধ হয়েছে।

সূত্র মতে, এ মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লীরা নামাজের আগে ও পরে বাগান ঘুরে ঘুরে দেখে চোখ ও মনের তৃপ্তি মেটান। আগত সৌন্দর্য পিপাসু সকল মুসল্লীরা সতর্ক থাকেন এ বাগানের যেন কোন ক্ষতি না হয়। 

বিশেষ করে সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীনের মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি এইচ এ রহিম, সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ এহিউল ইসলাম ও বাগান তৈরীর অন্যতম উদ্যোক্তা মো. মাহফুজুর রহমান শিকদার মসজিদ প্রাঙ্গণের ফুলে ফলে ভরা সবুজ অঙ্গন পরিচর্যায় সবসময় দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করে আসছেন। ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত এ মসজিদটি ধীরে ধীরে সকল মুসল্লীদের কাছে দারুণ জনপ্রিয় মসজিদ হিসেবে খ্যাতি লাভ করেছে। মসজিদের পাশ দিয়ে চলাচলকারী পথচারীরা একটু থেমে ওই মসজিদ প্রাঙ্গণের সুশোভিত দৃশ্য না দেখে কেউ ফেরেন না।

সূত্র জনায়, ইতোমধ্যে এ মসজিদের শোভিত বাগানটি পরিদর্শন করেছেন দৌলতপুরের কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের কর্মকর্তারা। তারা এ বাগানের সৌন্দর্য্য দেখে অভিভূত হয়েছেন। তারা মসজিদের বিভিন্ন জাতের ফুল, ফল, সব্জি ও ঔষধি গাছ থেকে এর উদ্যোক্তা মাহফুজুর রহমান শিকদারকে সরকারীভাবে প্রশিক্ষণ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। আধুনিক প্রশিক্ষণ নিয়ে অল্প জমিতে অধিক কিছু রোপণসহ কিভাবে আরও আকর্ষণীয় করা যায়, সেলক্ষ্যে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। প্রসঙ্গত ব্রুকলি, রেড ক্যাবেজ ও ক্যাপসিক্যাম ইংল্যান্ড জার্মানীসহ বর্হিবিশ্বের বিভিন্ন দেশে বেশ জনপ্রিয় খাবার হিসেবে পরিলক্ষিত হচ্ছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষরাও তাদের খাবারের তালিকায় এগুলো রাখছেন।

এ ব্যাপারে উদ্যোক্তা মাহফুজুর রহমান শিকদার বলেন, তিনি ইতোমধ্যে দৌলতপুরের কৃষি সম্প্রাসরণ বিভাগ থেকে আধুনিক ও বিজ্ঞান সম্মত প্রশিক্ষণের আমন্ত্রণ পেয়েছেন। প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে আরও সুন্দরভাবে মসজিদ প্রাঙ্গণে বিভিন্ন ধরনের ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছ রোপণ করবেন।

মসজিদ কমিটির সভাপতি এইচ এ রহিম বলেন, সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীন একটি মডেল মসজিদ হিসেবে সকলের কাছে উপস্থাপনের জন্য মসজিদ প্রাঙ্গণে নানাবিধ ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছ রোপণ করা হয়েছে। শহরের অন্যান্য মসজিদ পরিচালনা কমিটিও এ পথ অনুসরণ করতে পারেন।

মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, অল্প খরচে আন্তরিকতার সাথে কাজ করলে অনেক মসজিদে এ ধরনের সৌন্দর্য বর্ধন কাজ করা সম্ভব। তিনি সবুজ সংঘ মসজিদ আল আবেদীনের পথ অনুসরণ করার জন্য অন্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ