ঢাকা, সোমবার 04 February 2019, ২২ মাঘ ১৪২৫, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

শিক্ষকদের ক্ষোভ প্রকাশ তাড়াশে দাখিল পরীক্ষায় ডিউটি থেকে এবারও বাদ পড়লেন মাদরাসা শিক্ষকরা

শাহজাহান তাড়াশ সিরাজগঞ্জ থেকে: বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আওতায় অনুষ্ঠিতব্য দাখিল পরীক্ষায় তাড়াশ উজেলায় কক্ষ প্রত্যাবেক্ষকের দায়িত্ব থেকে এবার ও বাদ পড়লেন মাদ্রাসা শিক্ষকগণ। সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলায় দাখিল পরীক্ষায় শিক্ষকদের কক্ষ প্রত্যাবেক্ষকের দায়িত্ব থেকে মাদ্রাসা শিক্ষকদের বাদ দেওয়ায় পুরা শিক্ষকদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। জানা যায় তাড়াশে দাখিল পরীক্ষায় মাদ্রাসা শিক্ষকদের কক্ষ প্রত্যাবেক্ষকের পদ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। মাদ্রাসা কেন্দ্রে মাদ্রাসার শিক্ষকদের  পরিবর্তে জেনারেল শিক্ষকদের দিয়ে কক্ষ প্রত্যাবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মাদ্রাসার শিক্ষকগণ দারুণভাবে ব্যাথিত হয়েছেন। দেশে স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর প্রথম এই পদক্ষেপ  নেওয়া হয়েছে বলে ভুক্তভোগী অভিযুক্তরা জানিয়েছেন। 

হাইস্কুলের শিক্ষকরা মাদ্রাসা কেন্দ্রে আর মাদ্রাসা শিক্ষকগণ গুল্টা স্কুলে ডিউটি করবেন এমন সিদ্ধান্ত সিরাজগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার কর্তৃক জানানো হয়েছে এই নির্দ্দেশের পর শিক্ষক মহলের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাড়াশের মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক বলেন,এটা অন্যায় অবৈধ্য মাদ্রাসা বোর্ডে এ রকম সিদ্ধান্ত নেই। সেক্রেটারি মাওলানা সানোয়ার হোসেন বলেন, দেশের কোথাও এ নিয়ম নেই কোন কারনে আমাদের উপর অন্যায় সিদ্ধান্ত  চাপানো হচ্ছে তা আমাদের বোধগম্য নেই। সমিতির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক  মাওলানা শাহজাহান আলী বলেন,মাদ্রাসা বোডের নীতিমালায় স্পষ্ট উল্লেখ আছে  পরীক্ষা  কেন্দ্রে মাদ্রাসার শিক্ষকগনই দায়িত্ব  পালন করবেন। বোর্ড প্রতিষ্ঠার পর হইতে এভাবেই পরীক্ষা  পদ্ধতি চলে আসছে। হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত পুরো শিক্ষকমহল স্তম্ভিত হয়েছে। এ ব্যাপারে মাধ্যমিক অফিসার ফকির জাকির বলেন  পরীক্ষা মাদ্রাসা বোডের অধীনে পরিচালিত হওয়ার কথা কিন্ত এমনটি কেন হচ্ছে আমার জানা নেই। তাড়াশ  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  বলেন বাংলাদেশের কোথায় রদ বদল না হলেও সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ঠিকই হবে এমনটাই সাফ বলে দিয়েছেন। বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিরিক্ষক এক প্রশ্নের জবাবে সংগ্রামকে  বলেন মাদ্রাসার  শিক্ষকরা হাইস্কুল কলেজে ডিউটি করতে  পারবেন,কিন্ত  জেনারেল টিচারগন মাদ্রাসায় ডিউটি করতে পারবেন না কারন তারা আরবী  প্রশ্নের ভুলক্রুটি  বুঝতে পারবেন  না।  

তাড়াশে দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে এ বছর হাই স্কুলের শিক্ষকদের ডেকে এনে পরীক্ষায় হল ডিউটি করাচ্ছেন। তাড়াশের নওগাঁ সিনিয়র (স্নাতক) মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা ফিরোজ উদ্দিন আহম্মেদ,গোন্তা আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মান্নান,খড়খড়িয়া বিনোদপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুল হামিদ,সরাবপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক  বলেন মাদ্রাসা শিক্ষকদের বাদ দিয়ে দাখিল পরীক্ষায় হাই স্কুলের শিক্ষক দিয়ে দায়িত্ব পালন করানো মানে আমাদের অবমাননা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে মাদ্রাসা শিক্ষকগন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেরন। মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়াম্যান বলেন মাদ্রাসা বোর্ড একটা স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান এর একটা নিয়ম আছে এখানে মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে ম্দ্রাাসার শিক্ষকগণই ডিউটি করবেন এটাই স্বাভাবিক কিন্ত তাড়াশে কেন এর উল্টা হচ্ছে বিষযটি আমার জানা নেই। 

এ ব্যাপারে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফফাত জাহান বলেন জেলা প্রশাসক যেভাবে নির্দেষ দিয়েছেন সেই ভাবেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ