ঢাকা, সোমবার 11 February 2019, ২৯ মাঘ ১৪২৫, ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভেনেজুয়েলায় নির্বাচনের আহ্বান জানাতে জাতিসংঘের প্রস্তাব চায় যুক্তরাষ্ট্র

১০ ফেব্রুয়ারি, এএফপি/ রয়টার্স/ আনাদুলো এজেন্সি : যুক্তরাষ্ট্র ভেনিজুয়েলায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে জাতিসংঘে সাধারণ পরিষদে একটি খসড়া প্রস্তাব পেশ করেছে। রাশিয়া এর পাল্টা প্রস্তাব দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র চরম আর্থিক সংকটে পরা দেশটিতে আন্তর্জাতিক ত্রাণ সরবরাহেরও আহ্বান জানিয়েছে।

কূটনীতিকরা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের খসড়া প্রস্তাবটিতে নির্বাচনের কোন দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়নি। সমঝোতা চলছে। রাশিয়া নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে তার সমর্থনের অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রর প্রস্তাবে ভেটো দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে একটি টেক্সট বার্তায় বলা হয়েছে, ভেনিজুয়েরার একমাত্র গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে জাতীয় পরিষদের প্রতি আমাদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।

ভেনিজুয়েলার জাতীয় পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়ান গুয়েইদো নিজেকে ভেনিজুয়েরার অন্তবর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

খসড়া প্রস্তাবটিতে ভেনিজুয়েলার নিরস্ত্র মানুষের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে নিরাপত্তাবাহিনীর সহিংস হামলা ও দমনপীড়নের ব্যাপারে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

খসড়া প্রস্তাবটিতে ভেনিজুয়েলায় সংবিধানের সাথে সংগতি রেখে ও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতিতে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য অবিলম্বে রাজনৈতিক প্রক্রিয়া শুরু করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

প্রস্তাবটিতে জাতিসংঘ মহাসচিব এ্যান্টোনিও গুতেরেসকে এ ধরনের একটি নির্বাচন আয়োজনে তার সংস্থাগুলোকে ব্যবহার করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

কূটনীতিকরা জানান, এদিকে শুক্রবার মস্কো এর বিকল্প একটি প্রস্তাব দিয়েছে। তারা ভেনিজুয়েরার রাজনৈতিক স্বাধীনতা ও ভূখ-গত অখ-তার বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগ করা হতে পারে বলে উদ্বেগ জানিয়েছে।

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থানান্তর:  আন্তর্জাতিক বাজারে তেল বিক্রি থেকে পাওয়া অর্থ যুক্তরাষ্ট্রের বদলে রাশিয়ার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থানান্তরের উদ্যোগ নিয়েছে ভেনেজুয়েলা। এর অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই রাষ্ট্রায়ত্ত্ব তেল কোম্পানি পিডিভিএসএ’র পক্ষ থেকে ক্রেতাদের রাশিয়ার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের নাম্বার সরবরাহ করা হয়েছে। ওই অ্যাকাউন্টেই তেল কেনার অর্থ জমা দিতে বলা হয়েছে তাদের। প্রতিষ্ঠানটির জয়েন্ট ভেঞ্চারগুলোকেও একই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। রাশিয়ার গ্যাজপ্রমব্যাংক এও-তে সম্প্রতি নতুন এই অ্যাকাউন্টটি খোলা হয়েছে। সূত্র ও অভ্যন্তরীণ নথির বরাত দিয়ে রবিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম।

এর আগে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ভেনেজুয়েলায় হস্তক্ষেপ না করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। 

এমন পরিস্থিতিতে দৃশ্যত দেশটিকে কেন্দ্র করে বিভক্ত হয়ে পড়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো। বিদ্যমান ঘটনাপ্রবাহকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী কোল্ড ওয়ার বা স্নায়ুযুদ্ধের ছায়া হিসেবে দেখছেন কেউ কেউ।

পিডিভিএসএ’র বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞায় এমনিতেই ওয়াশিংটনের ওপর ক্ষিপ্ত ছিল কারাকাস। এর সঙ্গে যুক্ত হয় ভেনেজুয়েলার তেল খাত থেকে উপার্জিত অর্থ দেশটির স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো’কে দেওয়ার ঘোষণা। মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন সম্প্রতি ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো এবং তার মিত্ররা এখন থেকে আর দেশটির জনগণের সম্পদ হরণ করতে পারবে না।’ অন্যদিকে রাষ্ট্রের তেল বিক্রি থেকে উপার্জিত অর্থ সরকারবিরোধী আন্দোলনে ব্যয়ের হুঁশিয়ারি দেন স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো। এমন পরিস্থিতিতেই বিশ্ববাজারে তেল বিক্রিলব্ধ অর্থ জমা দিতে রুশ ব্যাংকের শরণাপন্ন হয় ভেনেজুয়েলা সরকার।

এদিকে বিরোধী নেতা হুয়ান গুইদো’র নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণার সিদ্ধান্ত অবৈধ বলে রায় দিয়েছে ভেনেজুয়েলার সুপ্রিম কোর্ট। এতে বলা হয়, গুইদো’র প্রেসিডেন্সি দাবি অবৈধ ও অকার্যকর।

বিচারক জুয়ান মেনডোজা এক বিবৃতিতে বলেন, গুইদো’র অন্তর্র্বতীকালীন সরকার দেশের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। দেশের প্রেসিডেন্টের ক্ষমতায় তিনি অন্যায়ভাবে হস্তক্ষেপ করছেন।

ইতোমধ্যেই গুইদো’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ভেনেজুয়েলার আদালত। তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টও জব্দ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ