ঢাকা, বৃহস্পতিবার 14 February 2019, ২ ফাল্গুন ১৪২৫, ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

এ বছরই আবার হবে বিপিএল

স্পোর্টস রিপোর্টার:এক বছরে দুই বিপিএল উপহার দিচ্ছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। চলতি মাসের ৮ তারিখ ষষ্ঠ আসরের পর্দা নেমেছে। যার শুরুটা হয়েছিল ৫ জানুয়ারি। পরের আসর অর্থাত বিপিএল সপ্তম সংস্করণের জন্য ভক্তদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে মাত্র ৮ মাস। চলতি বছরের নভেম্বরে মাঠে গড়াবে বিপিএল সপ্তম আসর এবং শেষ হবে ডিসেম্বরে।

গতকাল বুধবার এই তথ্য দেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেল, ‘এবছরের নভেম্বর-ডিসেম্বরে বিপিএল সপ্তম আসর অনুষ্ঠিত হবে। যেটা হয়ে গেল এটা ছিল ২০১৮ এর বিপিএল। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে ২ মাস পিছিয়ে জানুয়ারিতে করা হয়েছে। এটা ছিল জাতীয় স্বার্থে। প্রতিবছর তো নির্বাচন হবে না। কাজেই এ বছরের স্লটে আরেকটি বিপিএল হবে। নভেম্বর-ডিসেম্বরের পেছনে আমরা যাব না।’

এক ক্যালেন্ডারে দুই বিপিএল আয়োজনের খবরটি অবশ্য চাউর হয়েছিল ষষ্ঠ আসরের আগেই। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিকভাবে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের ভেতরে মতপার্থক্য দেখা দেয়। সেটা অন্য কোনো কারণে নয়, ব্যায়ের বিষয়টি মাথায় রেখেই। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মতপার্থক্য থাকলেও সপ্তম আসর আয়োজনে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে আশ্বস্ত করলেন এই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান।

তিনি যোগ করেন, ‘এটা ফ্র্যাঞ্চাইজিদের ব্যাপার না। তাছাড়া তারা বললেই তো আর হবে না। যেহেতু আমরা গতবারেরটা জানুয়ারিতে করেছি। অতএব আইসিসির স্লট অনুযায়ী এ বছরের বিপিএল নভেম্বর-ডিসেম্বরে হবে। একটি বিষয় আমাদের মাথায় রাখতে হবে যে ওই সময় অন্য কোনো টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে কী না, বিদেশী প্লেয়াররা আসতে পারবেন কী না। নানান দিক চিন্তা ভাবনা করে বিপিএল আয়োজন করা হয়। তো সেই বিবেচনায় নভেম্বর-ডিসেম্বর হবে সবচাইতে ভালো সময়। আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সাথে কথা বলে নেব। একটা মাস আগে পরে খুব একটা সমস্যা হবে না।’

এদিকে বিপিএল সপ্তম আসর আয়োজনে ভেন্যু বাড়ানোর নিদ্ধান্ত নিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। পঞ্চম ও ষষ্ঠ আসরের খেলা দেশের তিন ভেন্যু; ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে গড়ালেও আসন্ন সংস্করণের জন্য খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়াম প্রস্তুত করা হচ্ছে বলেও জানালেন শেখ সোহেল, ‘আসলে খুলনা স্টেডিয়ামে অনেক দিন আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয় না। কিছু কাজ আছে স্টেডিয়ামের। যদি কাজগুলো আমরা সময়মতো শেষ করতে পারি তাহলে আগে তিনটা ভেন্যু ছিল, এবার চারটি হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ