ঢাকা, বৃহস্পতিবার 14 February 2019, ২ ফাল্গুন ১৪২৫, ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ইউনাইটেডকে হারিয়ে পিএসজির ইতিহাস

স্পোর্টস ডেস্ক: আক্রমণভাগের দুই তারকা নেইমার ও এদিনসন কাভানির অনুপস্থিতিতে শুরুতে ধুঁকতে থাকে পিএসজি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে নিজেদের মেলে ধরে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে তাদেরই মাঠে হারিয়ে দিল টমাস টুখেলের দল। গড়লো প্রথম ফরাসি ক্লাব হিসেবে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জয়ের অনন্য কীর্তি। 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে মঙ্গলবার রাতে ২-০ গোলে জিতে প্যারিসের ক্লাবটি। প্রেসনেল কিম্পেম্বের গোলে পিএসজি এগিয়ে যাওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কিলিয়ান এমবাপে। আগামী ৬ মার্চ ফিরতি পর্বে পিএসজির মাঠে পল পগবাকে ছাড়াই খেলতে যাবে ইউনাইটেড। ম্যাচের শেষ দিকে দানি আলভেসকে অহেতুক ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী মিডফিল্ডার। গত দুই আসরে শেষ ষোলো থেকে ছিটকে পড়া পিএসজির সামনে এখন শেষ আটে ওঠার হাতছানি। প্রথমবারের মতো মুখোমুখি লড়াইয়ে নামা দুদলের প্রথমার্ধের পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। কেউই তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। উল্টো ছিল ফাউলের ছড়াছড়ি; এ সময়ে মোট ১৩ বার ফাউলের বাঁশি বাজান রেফারি। পাঁচজনকে দেখান হলুদ কার্ড; এর মধ্যে পিএসজির তিন জনকে। ৫৩তম মিনিটে দি মারিয়ার নেয়া কর্নারেই বাঁ পায়ের টোকায় পিএসজিকে এগিয়ে নেন ফরাসি ডিফেন্ডার কিম্পেম্বে। ৬০তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে দি মারিয়ার ক্রস ছোট ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্লেসিং শটে বল ঠিকানায় পাঠান এমবাপে। ৮৯তম মিনিটে পগবা বহিষ্কার হলে ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় স্বাগতিকদের। সুলশারের অধীনে ইউনাইটেডের এটি প্রথম হার। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১১ ম্যাচে অপরাজিত ছিল রেড ডেভিলরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ