ঢাকা, শনিবার 23 March 2019, ৯ চৈত্র ১৪২৫, ১৫ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সাদপন্থীদের ইজতেমার আখেরি মোনাজাত মঙ্গলবার

সাদপন্থীদের দ্বিতীয় দিনের বয়ান শুনছেন মুসল্লিরা, ছবি- ইউএনবি

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

টঙ্গীর তুরাগ তীরে চলছে সাদ অনুসারীদের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনের বয়ান। আজ এই গ্রুপের ইজতেমার শেষ হওয়ার কথা থাকলেও একদিন বর্ধিত করে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় আখেরি মোনাজাতে শেষ হচ্ছে এই বছরের বিশ্ব ইজতেমা।

বিবদমান দুটি গ্রুপ বাংলাদেশের তাবলিগের মুরব্বি জোবায়ের আহমেদ ও ভারতের মাওলানা সাদপন্থীদের আলাদাভাবে দুই দিন করে এ বছর বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করা হয়।

ইজতেমার মুরুব্বি সাদপন্থী মাওলানা আশরাফ আলী বলেন, বিশ্ব ইজতেমায় আগত লাখো মুসল্লি তাদের নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নিয়েছেন। তারা রবিবার থেকেই দলে দলে বিভক্ত হয়ে ধর্মীয় আলোচনা, তালিম, জিকির-আসকার নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সোমবার সকালে ধর্মীয় বয়ান করেন ভারতের মুরসালিন। বাংলায় অনুবাদ করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল্লাহ মনসুর। আগামীকাল সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে আখেরি মোনাজাত।

এদিকে, বিশ্ব ইজতেমায় মানুষের আসার সুবিধার্থে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচলে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। আখেরি মোনাজাতে আব্দুল্লাহপুর থেকে ভোগড়া বাইপাস এবং মীরের বাজার থেকে স্টেশন রোড পর্যন্ত উভয়মুখী মহাসড়কে সকল প্রকার যানবাহান চলাচল বন্ধ থাকবে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এবার চার দিনব্যাপী ইজতেমার প্রথম দুইদিন জোবায়ের অনুসারীরা ইজতেমায় অংশ নেন। শনিবার আখেরী মোনাজারে মধ্যদিয়ে শেষ হয় তাদের ইজতেমা । প্রশাসনের নির্দেশনায় শনিবার রাত ৯টার মধ্যেই জোবায়ের অনুসারীরা মাঠ ত্যাগ করেন। তার পর থেকে মাঠের নিয়ন্ত্রণ নেয় আইনশৃংখলা বাহিনী। অন্যদিকে সাদ অনুসারীদের  রবিবার সকাল ৭টায় মাঠে প্রবেশের কথা থাকলেও ভোর থেকেই তারা মাঠে প্রবেশ করেন । পরে তাদের আবেদনে একদিন সময় বাড়িয়ে ১৯ ফেব্রুয়ারি আখেরি মোনাজাতের তারিখ নির্ধারণ করে প্রশাসন।

- ইউএনবি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ