ঢাকা, মঙ্গলবার 19 February 2019, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সৈয়দ মোঃ আকরামের সহধর্মিনীর স্মরনে সাপ্তাহিক আমার তিতাস পত্রিকার মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সহ সভাপতি ও কল্যাণ ফান্ডের আহবায়ক দৈনিক আজকের হালচাল পত্রিকার  বিশেষ প্রতিনিধি ও দৈনিক সংগ্রামের জেলা প্রতিনিধি সৈয়দ  মোঃ  আকরামের সহধর্মিণী রাহমা সুলতানার স্মরনে সাপ্তাহিক আমার তিতাস পত্রিকার আয়োজনে গতকাল শুক্রবার বাদ মাগরিব  শহরের টিএ রোডস্থ মান্নান ম্যানশনের তৃতীয় তলায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্টিত হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আরজুর সভাপতিত্বে মিলাদ পরিচালনা করেন মওলানা মোঃ আল্ আমিন ও দোয়া পরিচালনা করেন মুফতি মোঃ এনামুল হাসান। মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মরহুমা রাহমা সুলতানা ও রাজিয়া সুলতানার রুহের মাগফেরাত  কামনা করে  দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।  দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহম্মদ মুসা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম কাউছার এমরান ও  রিয়াজ উদ্দিন জামি, দৈনিক আজকের হালচাল পত্রিকার বার্তা সম্পাদক সৈয়দ আনোয়ারুল ইসলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মফিজুর রহমান লিমন,  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম মোল্লা, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক শিহাব উদ্দিন বিপু, জেলা জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আশিকুল ইসলাম, দৈনিক প্রজাবন্ধুর নির্বাহী সম্পাদক এইচ.এম সিরাজ, সাপ্তাহিক ভিউর সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, সাপ্তাহিক তিতাসের সম্পাদক রেজাউল করিম,  দৈনিক করুলিয়ার সম্পাদক ইব্রাহিম খান সাদাত, যমুনা টেলিভিশন ও যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম, ডেইলী অবজার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আয়েশা আহমেদ লিজা, সাপ্তাহিক আমার কথা এর সম্পাদক প্রবীর চৌধুরী রিপন, সমাজ কর্মী মুসা, আওয়ামীলীগ নেত্রী নাজনীনসহ মরহুমার পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  অনুষ্ঠানটি সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন আমার পত্রিকার সম্পাদক  হাজী লতিফুল আলম সরকার পল্লব, পত্রিকার সহ সম্পাদক মনির আহমেদ ও চিত্র সাংবাদিক ইয়াকুব মিয়া। উল্লেখ্য গত ১০ ফেব্রুয়ারী শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় রাহমা সুলতানা পৌর শহরের কাজীপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। কর্তব্য চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষনা করে। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী ২ ছেলে ১ মেয়েসহ পরিবারের সদস্য ছাড়াও অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। গত রবিবার বাদ জোহর জেলা ঈদগাহ ময়দানে নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে কাজীপাড়াস্থ আতকা পীর মাজার সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ