ঢাকা, বুধবার 16 October 2019, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

কবি আল মাহমুদ বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছেন: মুস্তাফা জামান আব্বাসী

সংগ্রাম অনলাইন : বিশিষ্ট লেখক ও সঙ্গীতজ্ঞ জনাব মুস্তাফা জামান আব্বাসী বলেন, বাংলা ভাষা একটি সমৃদ্ধ ভাষা এবং এই ভাষার একজন প্রধান কবি আল মাহমুদ। তিনি তাঁর অসাধারণ কাজের জন্য বাংলা-ভাষাভাষি পাঠকের অন্তরে চিরদিন বেঁচে থাকবেন। তাঁকে কেউ মুছে ফেলতে পারবে না। মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কবি আল মহামুদ ছিলেন একজন ভাষাসৈনিক এবং মুক্তিযোদ্ধা। তিনি এই দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভূমিকা রেখেন। স্বাধীনতার পর দেশ গড়ার জন্য নিবেদিত প্রাণে কাজ করেছেন। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছেন।

বাংলাদেশ কালচারাল একাডেমি (বিসিএ),আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস উপলক্ষে এবং কবি আল মাহমুদ স্মরণে গত ২১শে ফেব্রুয়ারি, বিকেল ৪টায় রাজধানীর বিশ^সাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে আলোচনা, ভাষার গান, আবৃত্তি, কবিতা পাঠ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেছেন। দৈনিক নয়াদিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএ’র চেয়ারম্যান শরীফ বায়জীদ মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভাষা সৈনিক অধ্যাপিকা চেমন আরা, কবি আসাদ বিন হাফিজ,কবি হাসান আলীম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমান আখন্দ। কবির জীবন ও সাহিত্য নিয়ে আলোচনা করেন সাহিত্য- কথাসাহিত্যিক হারুন ইবনে শাহাদাত, নাট্যকার শাহ আলম নূর সংস্কৃতি সংগঠক ইব্রাহীম বাহারী প্রমুখ। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন বাংলাদেশ কালচারাল একাডেমির সেক্রেটারি  আবেদুর রহমান। কবি আল মাহমুদকে নিবেদিত কবিতা পাঠ করেন, কবি শরীফ আব্দুল গোফরান, কবি আমিনুল ইসলাম, কবি নাসির হেলাল, কবি নূর আল ইসলাম, কবি ওয়াহিদ আল হাসানসহ এক ঝাঁক নবীন প্রবীণ কবি।

আলোচনা পর্ব শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ভাষার গান গেয়ে শোনান কলকাতা থেকে আগত দশকরূপক সাহিত্য সংস্কৃতি সংগঠনের বিশিষ্ট শিল্পী সুমিত্রা ভট্টাচার্য, বীণা ভট্টাচার্য, মল্লিকা বসু, অর্নভ ভদ্র, সৌমিক বারিক দ্বীপঙ্ক দাস প্রমুখ। এছাড়াও বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পীদের মধ্যে হৃদয়ছোঁয়া সঙ্গীত পরিবশেন করেন লিটন হাফিজ চৌধুরী,কবি আল মাহমুদকে নিয়ে গান পরিবেশন করেন শিল্পী ওবায়দুল্লাহ তারেক, শিল্পী মিরাদুল মুনীম, উচ্চারণ, জাগরণ ও সন্দীপন শিল্পীগোষ্ঠীর শিল্পীরা। আবৃত্তি করেন আবৃত্তিকার মাহবুব মুকুল, সৈয়দ আল জাবের আহমেদ মুস্তাগিজুর রহমান প্রমুখ। 

প্রধান অতিথি জনাব মুস্তাফা জামান আব্বাসী তাঁর বক্তব্যে বলেন, ভাষা হলো মানুষের আদান প্রদানের সম্পর্ক। ভাষা শহীদরা সেই সম্পর্ক স্থাপনের জন্য জীবন দিয়েছিলেন। ভাষা আত্মার সাথে সম্পর্ক। ভাষা আত্মার বন্ধন। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ভাষা বাংলা ভাষা, শ্রেষ্ঠ গান বাংলা ভাষার গান। মরহুম কবি আল মাহমুদ বাংলা ভাষায় সাহিত্য রচনা করে আমাদেরকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। তাঁর লেখনিতে এ দেশের মাটি মানুষের একান্ত কথাগুলোই ফুটে উঠতো।আমরা তাঁর জন্য মাগফিরাত কামনা করছি।

অনুষ্ঠানের সভাপতি দৈনিক নয়াদিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন তাঁর বক্তব্যে বলেন, আরবি ভাষা যেমন আল্লাহর ভাষা পৃথিবীর সকল ভাষাও আল্লাহর সৃষ্টি। আমাদের মাতৃভাষাকে শুদ্ধ ভাবে শেখা ও চর্চা করতে হবে। বর্তমানে ভাষার উপর নানা ভাবে আক্রমন চলছে, তাই বাংলা ভাষাকে যথাযথভাবে চর্চাকে বেগবান করতে হবে। বাংলা একটি সমৃদ্ধ ভাষা। কবি আল মাহমুদও ছিলেন একজন সমৃদ্ধ কবি। তাঁর অবদান এই জাতি কোন দিন ভুলতে পারবে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ