ঢাকা, শনিবার 23 February 2019, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

টেস্টের আগে আজ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার : আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে নিউজিল্যান্ডে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলবে টাইগাররা। তবে টেস্টের আগে আজ একটি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ বাংলাদেশের প্রপিক্ষ নিউজিল্যান্ড একাদশ। লিঙ্কনে নিউজিল্যান্ড বোর্ড একাদশের বিপক্ষে ম্যাচটি শুরু হবে আজ ভোর ৪টায়। ইতোমধ্যে নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। সিরিজের হোয়াইটওয়াশ হয় টাইগাররা। নেপিয়ারে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৮ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। ক্রাইস্টচার্চেও দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটে হার টাইগারদের। ডানেডিনে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ৮৮ রানে হার মানে বাংলাদেশ। ফলে ৩-০ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজে জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার উদ্দেশ্য হল নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়া। এখানকার বাতাস বেশ ভারি। পেসারদের জন্য লাইন-লেন্থ ঠিক রাখা তাই কঠিন। গতকাল শুক্রবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বাংলাদেশ দলের ডানহাতি  পেসার আবু জায়েদ রাহি জানালেন এমনটাই। তিনি বলেন, ‘এ জায়গার বাতাস অনেক ভারি। দুদিনের প্রস্তুতি ম্যাচটাতে আমরা এটা নিয়েই কাজ করব। যেন পেস বোলাররা জায়গা মতো বল করতে পারি। কারণ, আজও বল করতে বেশ কষ্ট হয়েছে। বাতাসের জন্য বল এদিক-ওদিক চলে যাচ্ছিল।’ প্রতিকূল পরিবেশের সঙ্গে নিজেদের মানিতে নিতেই প্রস্তুতি ম্যাচের গুরুত্ব তুলে ধরেছেন রাহি। তিনি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে প্রস্তুতি ম্যাচটা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’ এ ম্যাচে নিজেদের ভুল-ত্রুটিগুলো শুধরে মূল ম্যাচে ভালো করতে চান রাহি। নিউজিল্যান্ডে টেস্ট জিততে পেসারদের ভালো বোলিংয়ের বিকল্প নেই। রাহিও চান এবার চমক দেখাতে। জানালেন, তাদের লক্ষ্য দুই ইনিংসেই নিউজিল্যান্ডকে অলআউট করা, ‘আমাদের প্রধান লক্ষ্য হল নিউজিল্যান্ডের ২০ উইকেট। কারণ একটা টেস্ট জিততে হলে কিন্তু ২০ উইকেট নিতে হবে। আর আমরা সেটা করারই  চেষ্টা করব।’

রাহি আরও জানালেন, ইনিংসের শুরুতেই কিউই শিবিরে আঘাত হানতে চায় বাংলাদেশি পেসাররা। শুরুতেই নিউজিল্যান্ডের কয়েকটি উইকেট তুলে নিতে পারলে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সম্ভব হবে বলে মনে করেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত সাতটি টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে একটি বাদে সবগুলোই হেরেছে তারা। একটি সিরিজ ড্র হয়। ২০১৩ সালে দেশের মাটিতে দুই ম্যাচের সিরিজে কিউইদের সাথে ড্র করে। নিউজিল্যান্ডের চারটি টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। ২০০১ সালে প্রথমবার। এরপর ২০০৮, ২০১০ ও ২০১৭ সালে। এখন পর্যন্ত ১৩টি টেস্টে ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড। ১০টিতে জয় পায় কিউইরা। ৩টি ম্যাচ হয় ড্র।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ