ঢাকা, শনিবার 23 February 2019, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

মুসলমানদের চিন্তাগত বিভাজন দূর করতে হবে -সফিউদ্দিন আহমদ

গতকাল শুক্রবার তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসা টঙ্গী গাজীপুরে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মাদরাসা শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত) সচিব সফিউদ্দিন আহমদ -সংগ্রাম

তা‘মীরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসা টঙ্গীর উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী’১৯ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ড.  মাওলানা ছালমানের সঞ্চালনায় তা‘মীরুল মিল্লাত ট্রাস্টের সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা যাইনুল আবেদীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সফিউদ্দিন আহমদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাদ্রাসা শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনিস্টিটিউট এর অধ্যক্ষ, প্রফেসর ড. মো: গোলাম আজাদ আযাদ এবং তা‘মীরুল মিল্লাত ঢাকা এর অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) ড. মাওলনা মো: আবু ইউসুফ,  টঙ্গীর সাবেক উপাধ্যক্ষ মাওলানা সফিক উল্লাহ আল মাদানী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মাওলানা মিজানুর রহমান, ছাত্রদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন ছাত্র সংসদের ভি. পি. মো: ইব্রাহীম শিশির।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সফিউদ্দিন আহমদ বলেন আমরা সবাই মুসলমান, যেখানেই যাই সেখানেই মুসলমাদের উন্নয়ন ও অগ্রগতির খোঁজ নেই। ডেনমার্ক, নরওয়ে, তুরস্ক, সৌদি আরব সর্বত্রই কম-বেশি মসজিদ ও মুসলমান আছে, যে আমেরিকায় মসজিদ পাওয়া যেত না সেখানে আজ আনাছে-কানাছে মসজিদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ইসলামের এই জাগরণের আমারা শুধু মাদ্রাসায় পড়া, লেবাসধারীদেরকেই  নয় বরং বড় মন নিয়ে সকলকেই ইসলামের  সাথে শামিল মনে করবো তবেই আমাদের এবং ইসলামের উন্নয়ন হবে। আমাদের মধ্যকার চিন্তাগত বিভাজন দূরীভুত করে এক উম্মাহ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে।
বিশেষ অতিথি প্রফেসর ড. মো: গোলাম আজম আযাদ বলেন, কারিগরি শিক্ষার ব্যাপকতার মাধ্যেমে আমরা দেশকে বেকারত্ব মুক্ত করবো। এক্ষেত্রে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। আলোচনা শেষে দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন অধ্যক্ষ মাওলানা যাইনুল আবেদীন। ছয়জন হাফেজ ছাত্রকে পাগড়ী প্রদান করা হয় এবং বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ