ঢাকা, মঙ্গলবার 5 March 2019, ২১ ফাল্গুন ১৪২৫, ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সুন্দরবন থেকে হরিণ শিকারের ফাঁদসহ তিনজন গ্রেফতার

খুলনা অফিস : সুন্দরবনের কটকা এলাকা থেকে হরিণ শিকারের ফাঁদ ও নৌকাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে বন বিভাগ। রোববার বিকেলে বন ও বন্যপ্রাণী আইনে দু’টি মামলা দায়ের করে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো-বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার নাজিম গোলদারের ছেলে জামাল হোসেন (২৫), একই উপজেলার তাফালবাড়ি এলাকার আব্দুল করিমের ছেলে আব্দুল মান্নান (৪০) ও আব্দুল হালিম মুন্সির ছেলে নাছির মুন্সি (৪৫)। এর আগে শনিবার (২ মার্চ) রাতে সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের কটকা স্টেশনের কদমতলা এলাকা থেকে ওই তিন হরিণ শিকারীকে গ্রেফতার করে বন বিভাগ। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি ডিঙ্গি নৌকা, ১৫শ’ ফুট হরিণ ধরা ফাঁদ, তিনটি বস্তা, একটি ছুড়ি ও একটি চাপাতি জব্দ করে বনরক্ষীরা।
এ ব্যাপারে শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) জয়নাল আবেদিন জানান, সুন্দরবনের কটকা স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম সরদারের নেতৃত্বে অভয়ারণ্য এলাকায় অভিযান চালিয়ে তিন হরিণ শিকারীকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার বিকেলে বন আইন ও বন্যপ্রাণী আইনে দু’টি মামলা দায়ের করে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। জব্দকৃত সরঞ্জামাদি শরণখোলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
মোরেলগঞ্জে অস্ত্রসহ একজন গ্রেফতার : রোববার ভোরে মোরেলগঞ্জ উপজেলার হোগলপাতি গ্রামে মিজানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি শ্যুটার গানসহ মিজানুর রহমান খান (৩৮) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল। মিজান ওই গ্রামের আব্দুল জব্বার খানের ছেলে। মিজানের বিরুদ্ধে থানায় নাশকতার মামলা রয়েছে।
বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহফুজ আফজালের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল ভোরে মিজানের বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় একটি শ্যুটার গানসহ মিজানকে গ্রেফতার করা হয়। মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ