ঢাকা, মঙ্গলবার 5 March 2019, ২১ ফাল্গুন ১৪২৫, ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সৈয়দপুরে স্কুলছাত্রী সুমী হত্যার বিচারের দাবিতে এলাকায় ক্ষোভ

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা : নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের বখাটে লম্পট সূর্য রায়ের উত্ত্যক্ত সহ্য করতে না পেরে নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী সুমি রায়ের আত্মহত্যার ঘটনায় পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।  পাশাপাশি উত্ত্যক্তকারী সূর্য রায়কে অবিলম্বে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি তথা বিচারের দাবিতে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।
অন্যদিকে টাকার বিনিময়ে সূর্যকে বাঁচাতে ওয়ার্ড মেম্বারসহ এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি তৎপর থাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সুমির দরিদ্র পরিবারকে ইতোমধ্যে সৎকারের ২০ হাজার টাকা দিয়ে বিষয়টি থামিয়ে দেয়ার চেষ্টা চলছে এবং মামলা তুলে নেয়ার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পাল বলেছেন, প্রাথমিক তদন্তে সূর্য রায় যে একজন লম্পট তা প্রমানিত হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। অতিদ্রুত তাকে আটক করে আইনের আওতায় আনা হবে। উল্লেখ্য, মেধাবী ছাত্রী সুমি রানী কে দীর্ঘদিন থেকে একই এলাকার দুই সন্তানের জনক মটর শ্রমিক সূর্য রায় প্রায়ই উত্যক্ত করতো। এ ব্যাপারে সূর্য’র পরিবারকে বার বার জানানো হলেও সে বিরত হয়নি। বরং গত ২ মার্চ দুপুরে সুমি নিজ বাড়িতে একাকী স্নানরত অবস্থায় সূর্য বাড়িতে ঢুকে তার শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে এবং সুমির ভাই এসময় চলে আসায় সে পালিয়ে যায়। এ অপমান সহ্য করতে না পেরে সুমি কিছুক্ষণের মধ্যে ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় ওইদিনই সৈয়দপুর থানায় সূর্য রায়কে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ