ঢাকা, বৃহস্পতিবার 14 March 2019, ৩০ ফাল্গুন ১৪২৫, ৬ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ এর উড়াল বন্ধ অধিকাংশ দেশে

১৩ মার্চ, নিউইয়র্ক টাইমস : বিশ্বব্যাপী বোয়িংয়ের ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ উড়োজাহাজের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশই ব্যবহার না করে মাটিতে নামিয়ে রাখা হয়েছে। মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যে এ ধরনের নতুন দুটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে ৩৪৬ জন আরোহী নিহত হওয়ার পর বিশ্বের অধিকাংশ এয়ারলাইন্স ও বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এ উড়োজাহাজটি ব্যবহার না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, খবর নিউ ইয়র্ক টাইমসের।

সচরাচর এক সপ্তাহের ভ্রমণে এই উড়োজাহাজটি ৮,৬০০ ফ্লাইটে ব্যবহৃত হতো, কিন্তু অধিকাংশ দেশ উড়োজাহাজটি নামিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ৬,০০০ ফ্লাইট ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে ফ্লাইট ট্র্যাকিং সার্ভিস ফ্লাইটরাডার২৪ এর তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে।

বিশ্বের অধিকাংশ বিমান সংস্থাগুলো এমন সিদ্ধান্ত নিলেও যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার তিনটি এয়ারলাইন্স, আমেরিকান এয়ারলাইন্স, সাউথওয়েস্ট এয়ারলাইন্স ও এয়ার কানাডা এখনো ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ ব্যবহার অব্যাহত রেখেছে।

এই তিনটি এয়ারলাইন্স এখনো উল্লেখযোগ্য সংখ্যক এ ধরনের উড়োজাহাজ ব্যবহার করে যাচ্ছে। মার্কিন ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ মডেলকে নিরাপদ বলে ঘোষণা করেছে।

অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ার কাছে জাভা সাগরে দেশটির লায়ন এয়ারের এ ধরনের একটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে ১৮৯ জন আরোহী নিহত হওয়ার পর বোয়িংয়ের এ মডেলটি নিয়ে প্রথম উদ্বেগ দেখা দেয়। রোববার এ ধরনের দ্বিতীয় আরেকটি উড়োজাহাজ ইথিওপিয়ার আদ্দিস আবাবার কাছে বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ জন আরোহী নিহত হন। দ্বিতীয় উড়োজাহাজটি কী কারণে বিধ্বস্ত হয়েছে এবং দুটি বিধ্বস্তের ঘটনাই একই কারণ সম্পর্কিত কি না তা এখনও পরিষ্কার হয়নি। তবে দুটি ক্ষেত্রেই উড়োজাহাজ দুটি নতুন ছিল। 

এ দুটি ঘটনার জেরেই পূর্ব সতর্কতা হিসেবে প্রায় বিশ্বব্যাপী বোয়িংয়ের ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ উড়োজাহাজ মাটিতে নামিয়ে রাখা হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী যে সরকার, নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষগুলো ও স্বতন্ত্রভাবে যে এয়ারলাইন্সগুলো তাদের বহরে থাকা ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ উড়োজাহাজ নামিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাদের তালিকা নিউ ইয়র্ক টাইমস, বিবিসি, বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুয়ায়ী দেওয়া হল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ