ঢাকা, শুক্রবার 15 March 2019, ১ চৈত্র ১৪২৫, ৭ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে রিহ্যাবের চার দিনব্যাপী আবাসন মেলার উদ্বোধন

চট্টগ্রাম ব্যুরো : ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেছেন, বাংলাদেশে আবাসন ব্যবসার বয়স বেশি দিনের না হলেও শুরুটা ছিলো দুর্দান্ত। কিন্তু হঠাৎ করে একটা পর্যায়ে এসে আবাসন ব্যবসা খুব চ্যালেঞ্জর মুখে পড়ে গিয়েছে। তবে আমার মনে হচ্ছে, আবাসন ব্যবসার মেঘ সরছে। এ ব্যবসার একটা ভালো ভবিষ্যত আমি দেখতে পাচ্ছি। বৃহস্পতিবার নগরের পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। 

ভূমিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে সরকার বিগত ১০ বছর দেশে প্রচুর অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছে। মানুষের মৌলিক চাহিদা- অন্ন, বস্ত্র, শিক্ষা, বাসস্থান এগুলো অ্যাড্রেস করতে সক্ষম হয়েছে। ফলে সরকারের প্রতি মানুষের আস্থা-বিশ্বাস বৃদ্ধি পেয়েছে।

সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেন, জাতিসংঘের মিলিনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল- এমডিজি বাংলাদেশ সাফল্যের সঙ্গে পূরণ করেছে। এখন সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল- এসডিজি পূরণের জন্য কাজ চলছে।

তিনি বলেন, যেহেতু এসডিজি পূরণের অন্যতম শর্ত সবার জন্য নিরাপদ বাসস্থান, তাই আবাসন খাত উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে আরও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। আশা করি সব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আবাসন খাত সামনের দিকে শক্ত অবস্থান নিয়ে এগোবে। 

রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আলামিন বলেন, সরকারি খাস জমি পেলে, সেখানে ভবন তৈরি করে গ্রাহকের হাতে কম মূল্যে ফ্ল্যাট তুলে দেওয়া সম্ভব হবে। 

তিনি বলেন, দেশে প্রায় ৩০ লাখ লোকের আবাসন চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে সরকার ও রিহ্যাব মিলে মাত্র ১০ শতাংশ লোকের আবাসন চাহিদা পুরণ করছে। জমির উচ্চ মূল্যের কারণে বাকিদের আবাসন চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

আলমগীর শামসুল আলামিন বলেন, অনেকেই ১০ থেকে ৩০ লাখ টাকার মধ্যে ফ্ল্যাট চাইছেন। তাদের চাহিদা মেটাতে আমাদের কম মূল্যে জমি দরকার। এখানে ভূমিমন্ত্রী আছেন, তাকে অনুরোধ করবো- চট্টগ্রামসহ সারা দেশে যেসব সরকারি খাস জমি আছে তার কিছু রিহ্যাব মেম্বারদের দেন। আমরা সেখানে শহর তৈরি করে কম মূল্যে গ্রাহকের হাতে ফ্ল্যাট তুলে দেবো।

রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট বলেন, বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে প্রধানমন্ত্রী ভিশন ২০২১ ও ভিশন ২০৪১ হাতে নিয়েছেন। এসব ভিশন বাস্তবায়নে রিহ্যাবে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চায়। সবার আবাসন সমস্যা মিটিয়ে দেশের অগ্রযাত্রার অংশীদার হতে চাই।

রিহ্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী বলেন, উন্নত রাষ্ট্রের পূর্বশর্ত হলো-সব নাগরিকের আবাসন চাহিদা পূরণ করা। সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগের মাধ্যমেই এটি সম্ভব।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) ভাইস প্রেসিডেন্ট  ও ফেয়ার স্ট্যান্ডিং কমিটির কো-চেয়ারম্যান কামাল মাহমুদ এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ পরে রিহ্যাব নেতাদের নিয়ে ফিতা কেটে চারদিন ব্যাপী ‘রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ারের’ উদ্বোধন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ