ঢাকা, শুক্রবার 15 March 2019, ১ চৈত্র ১৪২৫, ৭ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচনে  ৩ হাজার ১৬৫টি ভোট পড়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিতে (সুপ্রিম কোর্ট বার) দুই দিনব্যাপী নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিন ৩ হাজার ১৬৫ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। প্রথম দিন বুধবার ২ হাজার ৯৭০ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

পরপর দুইদিন (বুধ ও বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে এ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট ৪৪টি বুথে আইনজীবীরা তাদের ভোট প্রদান করেন।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী জয়নাল আবেদীন জানিয়েছেন, গতকাল রাত ১১টার দিকে ভোট গণনা শুরু হয়। ভোট গণনা শেষ করার পরই ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

আইনজীবী ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান জানান, বুধবার (১৩ মার্চ) প্রথম দিনে ভোট দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টে

র ২৯৭০ জন আইনজীবী। দুই দিনে মোট ৬১৩৫ জন আইনজীবী তাদের ভোট দিয়েছেন।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী জয়নাল আবেদীন বলেন, দুপুরে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও ভোটারদের লাইন শেষ না হওয়ায় ৩০ মিনিট সময় বাড়ানো হয়েছিল।

তিনি আরও জানান, উৎসবমুখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির দুই দিনব্যাপী নির্বাচনের দুইদিনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। নির্বাচন নিয়ে কোনো ধরনের অভিযোগে ওঠেনি। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতেই ভোট গণনা করার কথা রয়েছে। ভোট গণনা শেষ করার পরই ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

সুপ্রিম কোর্ট বারের তত্ত্বাবধায়ক নিমেষ চন্দ্র দাস বলেন, এবারের নির্বাচনে মোট ৭ হাজার ৮২৫ জন ভোটার ছিলেন। তাদের মধ্যে ৬১৩৫ জন আইনজীবী ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।

প্রতি বছর সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৭টি সম্পাদকীয় ও ৭টি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে। এবারের নির্বাচনে পূর্ণাঙ্গ প্যানেল ঘোষণা করেছে সরকার সমর্থিত সাদা প্যানেল এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত নীল প্যানেল। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে দু’জন এবং সদস্য পদের জন্য একজনসহ মোট ৩৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সভাপতি পদে সমিতির সাবেক সম্পাদক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন (এ এম আমিন উদ্দিন) ও সম্পাদক পদে বাংলাদেশ আইন সমিতির সাবেক সম্পাদক আইনজীবী আবদুন নুর দুলালের নেতৃত্বে সাদা প্যানেল থেকে ১৪ জনের পূর্ণাঙ্গ প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অপরদিকে বারের সাবেক সভাপতি ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট আব্দুল জামিল (এ জে) মোহাম্মদ আলী এবং সম্পাদক পদে টানা ছয়বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহাবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে নীল প্যানেলে ১৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এ ওয়াই মশিউজ্জামান। তার নেতৃত্বে একটি সাব-কমিটি দায়িত্ব পালন করছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ