ঢাকা, সোমবার 18 March 2019, ৪ চৈত্র ১৪২৫, ১০ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

‘বঙ্গবন্ধু একটি দেশ পতাকা ও মানচিত্রের নাম’----- চুয়েট ভিসি

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেছেন, বঙ্গবন্ধু একটি দেশ, পতাকা ও মানচিত্রের নাম। তিনি অকৃত্রিম দেশপ্রেম ও রাজনৈতিক দূরদর্শিতায় সমসাময়িক রাজনীতিবিদদের পেছনে ফেলে স্ব-মহিমায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তিনি তার মাত্র ৫৫ বছরের জীবনে প্রায় ১৩ বছরে মত সময় কারাগারে কাটিয়েছেন। এটাই প্রমাণ করে তিনি কতবড় ত্যাগী নেতা ছিলেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন মানবতাবাদী ও ভিশনারী নেতা। ছোটবেলা থেকেই তিনি শোষণের বিরুদ্ধে ও শোষিত মানুষের পক্ষে কাজ করে গেছেন। শিশুদের প্রতি তাঁর মমত্ববোধ ছিল অভাবনীয়। আজ থেকে কয়েক দশক আগেই তিনি শিশুদের অধিকার ও বিকাশে বেশকিছু দূরদর্শী সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। যার সুফল আজ আমাদের শিশুকিশোররা পাচ্ছেন। 

চুয়েট ভিসি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তা বহিঃর্বিশ্বে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। বিশ্বনেতারাও আজ প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বগুণে প্রশংসায় পঞ্চমুখ। কিন্তু এখনো কিছু স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিদেশকে নিয়ে নানা অপপ্রচার লিপ্ত। তাদের রুখে দিতে হলে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ ও চেতনাকে শিশুকিশোরসহ তরুণপ্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। তবেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে উঠবে। তিনি অদ্য ১৭ মার্চ (রোববার), ২০১৯ খ্রি. চুয়েটের প্রশাসনিক ভবনের কাউন্সিল কক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০০তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 

চুয়েটে জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি এবং স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. রনজিৎ কুমার সূত্রধর, পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রহমান ভূঁইয়া, তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. কৌশিক দেব, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক। এতে আরো বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় প্রধানগণের পক্ষে যন্ত্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহম্মদ, প্রভোস্টগণের পক্ষে শহীদ তারেক হুদা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রশীদ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফীন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম, কর্মচারী সমিতিরি সভাপতি জনাব মোঃ জামাল উদ্দীন। অনুষ্ঠানে নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এটিএম শাহজাহানের সঞ্চালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট ও মানবিক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামরুল হাছান। 

এর আগে সকালে ক্যাম্পাসের স্বাধীনতা চত্ত্বর সংলগ্ন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিনব্যাপী কর্মসূচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এ সময় বিভিন্ন অনুষদের ডীনগণ, রেজিস্ট্রার ও ছাত্রকল্যাণ পরিচালক উপস্থিত ছিলেন। এরপর চুয়েট বঙ্গবন্ধু পরিষদের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে আলোচনা সভা শেষে কোমলমতি শিশুদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ১০০তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের কেক কাটা হয়। এরপর শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুুষ্ঠিত হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ