ঢাকা, শুক্রবার 22 March 2019, ৮ চৈত্র ১৪২৫, ১৪ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সড়ক-মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল বন্ধ করতে সরকারের ব্যর্থতায় চরম ক্ষোভ

খুলনা অফিস : নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে জনজীবনে নাভিশ্বাস সৃষ্টি হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে গৃহস্থালির কাজে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে তা ভয়াবহ চাপ সৃষ্টি করবে। জনদূর্ভোগকে আরো বাড়িয়ে দেয়ার মতো কোন সিদ্ধান্ত সরকার গ্রহণ করলে বিএনপি তীব্র প্রতিবাদ জানাবে এবং রাজপথের আন্দোলন গড়ে তুলবে। খুলনা মহানগর বিএনপির এক প্রস্ততি সভায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর কে ডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা থেকে সড়ক-মহাসড়কে পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য, অনিয়ম ও মৃত্যুর মিছিল বন্ধ করতে সরকারের ব্যর্থতায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। সেই সাথে সব ধরনের বাগাড়ম্বর বন্ধ করে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানানো হয়। 

সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। সভা থেকে আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস যথাযথ মর্যাদায় উদযাপনের লক্ষ্যে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।  কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ভোরে সকল দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল ৭টায় গল্লামারি শহীদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ। সকাল ১০ টায় খালিশপুর, দৌলতপুর ও খানজাহান আলী থানা বিএনপির উদ্যোগে স্ব স্ব দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। বিকেল ৪টায় কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ের সামনে জমায়েত, দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা, স্বাধীনতা আন্দোলনের সকল শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া মোনাজাত এবং সবশেষে নগরীতে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হবে। র‌্যালীতে স্বাধীনতার মহান ঘোষক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম, সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমানের পোট্রেট বহন করা হবে। 

বর্তমান ফ্যাসিষ্ট অগণতান্ত্রিক সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাদন্ড দিয়ে বন্দী করে রাখার প্রতিবাদে বিএনপি এবার আলোকসজ্জা কর্মসূচি পালন করবে না। 

প্রস্ততি সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশারফ হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, শাহজালাল বাবলু, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইশবাল হোসেন, জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, সিরাজুল হক নান্নু, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, মহিবুজ্জামান কচি, মেহেদী হাসান দীপু, শফিকুল আলম তুহিন, আজিজুল হাসান দুলু, সাদিকুর রহমান সবুজ, ইকবাল হোসেন খোকন, এহতেশামুল হক শাওন, শেখ সাদী, সাজ্জাদ হোসেন তোতন, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, মাসুদ পারভেজ বাবু, কে এম হুমায়ুন কবির, এশরামুল হক হেলাল, হাসানুর রশিদ মিরাজ, শামসুজ্জামান চঞ্চল, শরিফুল ইসলাম বাবু, সাইফুল ইসলাম সান্টু, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, শেখ ইমাম হোসেন, বদরুল আনাম, জামিরুল ইসলাম, আহাসনউল্লাহ বুলবুল, জহর মীর, আবুল কালাম জিয়া, আফসারউদ্দিন মাস্টার, হেদায়েত হোসেন হেদু প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ