ঢাকা, বুধবার 10 April 2019, ২৭ চৈত্র ১৪২৫, ৩ শাবান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিশ্বকাপে সুযোগ পেলে শতভাগ দেয়ার চিন্তা করবো---------সাইফউদ্দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার : এবারের বিশ্বকাপে পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা একপ্রকার নিশ্চিতই বলা চলে। তবে এখনো বিশ্বকাপ নিয়ে ভাবছেন না ২২ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার। তার ধ্যানজ্ঞ্যান এখন পুরোপুরি চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের দিকেই। যেখানে তার দল আবাহনী লিমিটেড লড়ছে টানা দ্বিতীয় শিরোপার জন্য। আজ শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে প্রথম পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচটি খেলবে আবাহনী। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা-না থাকার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে এখন এমন কিছু আমার মাথায় কাজ করছে না। আপাতত আমি ডিপিএলের ম্যাচগুলো নিয়ে চিন্তা করছি। যখন স্কোয়াড  ঘোষণা হবে, যখন বিশ্বকাপের টিকেট হাতে পাব, তখন এ ব্যাপারে চিন্তা করব।’ প্রথমবারের মতো বৈশ্বিক কোনো আসরে খেলার রোমাঞ্চ কাজ করছে সাইফউদ্দিনের মাঝেও।

 তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক ক্রিকেটারের স্বপ্ন থাকে বিশ্বকাপে খেলার। যদি সুযোগ পাই অবশ্যই আমারও স্বপ্নপূরণ হবে। পাশাপাশি ইংল্যান্ডের কন্ডিশন, নিজেকে প্রমাণ করার মত সবচেয়ে ভালো মঞ্চ বিশ্বকাপ। বিশেষ করে আমরা যারা জুনিয়র প্লেয়ার, তাদের জন্য। ভালো করলে সামনে আরও ভালো সুযোগ আসবে। চেষ্টা করব নিজের শতভাগ দেয়ার।’ চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে প্রথম নয় রাউন্ডের মধ্যে ৮টিতে জিতে সমানতালে লড়ছিলো সাইফউদ্দিনের আবাহনী এবং লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। তবে দশম রাউন্ডে আবাহনীকে উড়িয়ে দিয়ে এককভাবে শীর্ষস্থান দখল করেছে রূপগঞ্জ। এতে অবশ্য ভড়কে যাননি সাইফউদ্দিন তথা আবাহনী। এখনো শিরোপা জেতা সম্ভব জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটে সবাই একটা বাজে দিন পার করেছি। এটা নিয়ে আমরা চিন্তিত না। যেহেতু এখনো ছয়টা ম্যাচ আছে, সুপার লীগের পাঁচটাসহ। আমরা খুব একটা দূরে নেই। রূপগঞ্জ থেকে মাত্র দুই পয়েন্ট দূরে আছি আমরা। আমরা যদি ভালো কামব্যাক করি, আমরা অবশ্যই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দাবীদার। তিনি আরও বলেন, ‘আসলে ম্যাচে না হারলে তো টুইস্ট হয় না। এটা খুব বেশি না, মাত্র দুই পয়েন্ট। ওদের সাথে আমাদের আরেকটা ম্যাচ হবে সুপার লীগে। প্রথমটায় হেরেছি, আশা করি পরেরটায় জিতব। আর সুপার লীগে মোটামুটি সবগুলো দলই ভালো। একে অন্যকে হারানোর ক্ষমতা রাখে। আমরা যদি ব্যাক টু ব্যাক চার-পাঁচটা ম্যাচ জিতে যাই, তাহলে আবার রেসে চলে আসব।’ এসময় সুপার লিগের ব্যাপারে আশাবাদী মন্তব্য শোনা যায় এ পেস বোলিং অলরাউন্ডারের কণ্ঠেভ তিনি বলেন, ‘সুপার লিগে মনে হয় রিজার্ভ ডে আছে, কার্টেল ওভার আছে। কার্টেল ওভার হলে আমাদের দলে বেশ কিছু হার্ড হিটার আছে। রুম্মন (সাব্বির রহমান) ভাই বাংলাদেশের সেরা। আমি, মাশরাফি ভাই আছি বোলিংয়ে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ