ঢাকা, রোববার 14 April 2019, ১ বৈশাখ ১৪২৬,৭ শাবান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নিউইয়র্ক পোস্টের কার্যকলাপ নির্ভেজাল বর্ণবাদী

১৩ এপ্রিল, এনবিসি নিউজ ডটকম : ২০০১ সালের সেপ্টেম্বরের ১১ তারিখে যুক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে হামলা এবং দেশটিতে মুসলিম নাগরিকদের অধিকার সম্পর্কে মন্তব্য করে মিনোশোটা রাজ্যের কংগ্রেসওম্যান ইলহান ওমার ফের বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন।

গত মাসে ‘Council on American-Islamic Relations’ বা CAIR নামের একটি সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে ওমার ভুল ক্রমে মন্তব্য করেন যে, সংগঠনটি মূলত ৯/১১ এর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিক্রিয়ায় চালু হয়েছিল।

তিনি বলেন, ‘CAIR ৯/১১ এর পরবর্তী সময়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল কারণ তারা মনে করেছিল কিছু মানুষ একত্রিত হয়ে অনেক কিছুই করতে পারে এবং যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিম সমাজ তাদের নাগরিক স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’

তবে ইলহান ওমার এমন মন্তব্য করে ঠিক কি বুঝাতে চেয়েছেন তা পরিষ্কার করে বলা যাচ্ছে না।

ওমারের একজন মুখপাত্র বলেছে, কংগ্রেসওম্যান CAIR এর প্রতিষ্ঠা সম্পর্কে ভুলক্রমে এমন মন্তব্য করেছেন।

চলতি মাসের ১১ তারিখ বার্তা সংস্থা দি নিউইয়র্ক পোস্ট তাদের একটি প্রতিবেদনে টুইন টাওয়ারে হামলার সময় বিমান আছড়ে পড়ার একটি দৃশ্যের উপর ওমারের একটি আলোকচিত্র ছাপায় এবং সেখানে শিরোনাম করা হয়- ‘এখানে আপনার সেই অনেক কিছু লুকিয়ে রয়েছে।’

এদিকে দেশটির আরেক মুসলিম কংগ্রেসওম্যান রাশিদা তালিব ওমারের পক্ষাবলম্বন করে এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘নিউইয়র্ক পোস্ট সঠিক ভাবেই জানে তারা কি করেছে, তারা ওমারের মন্তব্যের শুধুমাত্র একটি অংশ কেটে নিয়েছে এবং তাকে হৃদয় বিদারক একটি আলোকচিত্রের উপর ছাপিয়ে ওমারের জীবনকে হুমকির মুখোমুখি করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘তাদের প্রতি লজ্জা।’

বার্তা সংস্থা এমএসএন বিসি কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রাশিদা তালিব নিউইয়র্ক পোস্ট সম্পর্কে মন্তব্য করে বলেন, ‘তাদের কার্যকলাপ নির্ভেজাল বর্ণবাদী আচরণ।’

এসময় তিনি আরো বলেন, ‘তারা আমাদের সাথে সবসময় এমন আচরণ করে। বিশেষত বৈচিত্র্যপূর্ণ নারীদের প্রতি। তারা আমাদের বলা শব্দ সমূহকে বিকৃত করে কারণ তারা আমাদের ভয় পায়... কারণ আমরা সত্যের শক্তি সম্পর্কে আলোচনা করি।’

একই সাথে যুক্তরাষ্ট্রের আরেক নারী কংগ্রেসওম্যান আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-কর্টেজ ইলহান ওমারের পক্ষ নিয়ে এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘ওমার ৯/১১ দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সমূহের জন্য রিপাবলিকান দলের চাইতেও বেশী কিছু করেছেন।’

অন্যদিকে ‘Fox and Friends’ নামের টেলিভিশন অনুষ্ঠানের আয়োজক ব্রেইন কিলমেদে ওমারের দেশ প্রেম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। অনুষ্ঠানে আগত ডেমোক্রেটিক দলের একজন নেতা ওমারের দিকে ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, ‘সে আমেরিকার প্রথম মুসলিম কংগ্রেসওম্যান তা অতি আশ্চর্যের বিষয়।’

আরেক কংগ্রেসম্যান ড্যন ক্রেয়েনস টুইটারে ওমারের এমন মন্তব্যকে ‘অবিশ্বাস্য’ বলে আখ্যায়িত করেন।

আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-কর্টেজ গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, ‘ওমার সম্পর্কে নিউইয়র্ক পোস্ট যা ছাপিয়েছে তা সম্পর্কে বলতে গেলে বলতে হয় আমরা এমন এক পর্যায়ে পৌঁছিয়েছি যেখানে সংবাদ মাধ্যমটির এমন আচরণ নারী উন্নয়নের বিরুদ্ধে এক ধরনের সংঘাতের মত।’

‘Fox and Friends’ এর ব্রেইন কিলমেদের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় একজন উগ্রপন্থী ইতোমধ্যে ওমারকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। এমনকি ওই ব্যক্তি টুইটারে ওমারকে ‘বিপদজনক উদ্দীপনা দান কারী’ বলে মন্তব্য করেছে।

ইলহান ওমার তার প্রতি এসকল সমালোচনার জবাবে চলতি মাসের ১০ তারিখ এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘আমার সহকর্মীদের মতই এ দেশের প্রতি আমার ভালোবাসা এবং অঙ্গীকার প্রশ্নের ঊর্ধ্বে। আমরা সকলেই আমেরিকান।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ