ঢাকা, মঙ্গলবার 16 April 2019, ৩ বৈশাখ ১৪২৬, ৯ শাবান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

আল্লাহর বিধান অমান্য করার কারণেই খুন ধর্ষণ মহামারী আকার ধারণ করেছে

দেশের শীর্ষ উলামায়ে কেরাম এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, সারাদেশে খুন, গুম, ধর্ষণ, শ্লীলতাহানীসহ নানামুখী অনৈতিক কর্মকান্ডের মহোৎসব চলছে। আল্লাহর বিধান অমান্য করার কারণেই সামাজিক বিশৃংখলা, অনৈতিকতা, খুন, ধর্ষণ মহামারী আকার ধারণ করছে। আল্লাহ তায়ালা স্পষ্টভাবে সতর্ক করে বলেন, “জলে স্থলে, অন্তরীক্ষে সর্বত্র ফেতনা, ফাসাদ, বিশৃংখলা মানুষের হাতেরই কামাই। আল্লাহ তাদেরকে কৃতকর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান।” (সূরা রুম : ৪১)
তারা বলেন, আজ ছেলেমেয়েদের অবাধ মেলামেশার সুযোগ করে দেওয়া। অভিভাবকদের পক্ষ থেকে উঠতি বয়সের সন্তানদের মনিটরিং না করা, তাদেরকে নৈতিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা না রাখার দরুন আজ তারা অশ্লীলতা ও বেলেল্লাপনায় গা ভাসিয়ে দিচ্ছে। সঠিক দ্বীন চর্চার পরিবেশ ও নৈতিকতা শিক্ষাদানের পরিবর্তে সন্তানদেরকে অপসংস্কৃতি, কুশিক্ষা ও বিজাতীয় সভ্যতা সংস্কৃতির রাস্তায় ছেড়ে দেওয়ার কারণে ব্যক্তি, সমাজ ও সামাজিক পরিবেশ দিন দিন বিষক্ত হয়ে যাচ্ছে। অথচ অভিভাবকদের ফরজ দায়িত্বই হলো অধীনস্তদের দ্বীনি পরিবেশে প্রতিপালন করা। আজ এই নৈতিক পরিবেশ তৈরীর সুযোগ না থাকার করণেই আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সোনার সন্তানেরা নীতি-নৈতিকা হারিয়ে সর্বস্বান্ত ও দেউলিয়া হয়ে পড়ছে। আবার জীবননাশের ঘটনাও ঘটেই চলেছে। তাই আসুন ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, সংসার ও দেশে সর্বত্রই দ্বীনি ও নৈতিক শিক্ষার কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করি।
বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সভাপতি শাইখ আবদুল মোমিন, ইসলামী ঐক্যজোটের আমীর মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, খেলাফত আন্দোলনের প্রধান আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হজুর, অধ্যক্ষ মাওলানা যাইনুল আবেদীন, মাওলানা জাফরুল্লাহ খান, মাওলানা মহিউদ্দীন রব্বানী, ড. মাওলানা খলিলুর রহমান মাদানী, শাহতলীর পীর মাওঃ আবুল বাসার, ফরায়েজী আন্দোলনের আমীর মাওলানা আব্দুল্লাহ মোঃ হাসান, ইসলামী কানুন বাস্তবায়ন পরিষদের আমীর মাওলানা আবু তাহের জিহাদী, মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, হক্কানী পীর মাশায়েখ পরিষদের মহাসচিব মাওলানা শাহ আরিফ বিল্লাহ সিদ্দীকী, মীরের সরাইর পীর সাহেব মাওলানা আঃ মোমেন নাছেরী, টেকেরহাটের পীর মাওলানা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনসারী, মুফতি ফয়জুল হক জালালাবাদী, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, তাহরীকে খতমে নবুয্যাতের আমীর মুফতি ড. সৈয়দ এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী, মহাসচিব পীর মাওলানা শরীফ হোসাইন,মুফতি ফখরুল ইসলাম, মাওলানা আজিজুর রহমান আজিজ, আইম্মাহ পরিষদের মহাসচিব মাওলানা এনামুল হক মুসা, মাওলানা হাফেজ আবুল হোসাইন, মাওলানা নাসির উদ্দীন খান, শাহ এমদাদুল্লাহ পীর সাহেব, খাজা শাহ ওয়ালিউল্লাহ পীর সাহেব গাছতলা, হক্কানী ত্বরীকত মিশনের আমির আধ্যাত্মিক গুরু শাইখ নুরুল হুদা ফয়েজী, হক্কানী ত্বরীকত মিশনের জেনারেল সেক্রেটারী আল্লামা মুস্তাক ফয়েজী, ইসলামী ঐক্য মঞ্চ সভপতি মাওলানা ইদ্রিস হোসাইন, সেক্রেটারী আবদুস সাত্তার, খাদেমুল ইসলাম জামাত আমির মাওলানা মুহিবুল্লাহ, সেক্রেটারি মাওঃ সারওয়ার হোসাইন, জমিয়াতে উলামা দেওবন্দ পরিষদের সভাপতি হযরত মাওলানা মুহাদ্দেস আবদুল্লাহ কাসেমী ও সেক্রেটারী হযরত মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক কাসেমী, জাতীয় খতীব পরিষদের আমীর মুফতি মাওলানা মাউদুর রহমান, হুফ্ফাজ পরিষদ সভাপিত হাফেজ লেয়াকত হোসাইন ও সেক্রেটারী মুফতি মাহবুবুর রহমান, ইসলামী অন লাইন এ্যাক্টিভিটস সভাপতি শায়খুল হাদীস মাওলানা আবদুস সামাদ ও মহাসচিব মুফতি আবু আনাস, সম্মিলিত ইসলামিক জোটের আমির মাওলানা আবদুল বাকি, সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা মনিরুজ্জামান, জাতীয় ইমাম সোসাইটির মহাসচিব মুফতি জোবায়ের আহমদ কাসেমী, ইসলামী সমাজ সভাপতি মাওলানা রফিকুর রহমান আল কাশেমী ও সেক্রেটারী জেনারেল মুফতি জাকারিয়া, ইসলামের জনতা সভাপতি মুফতি আবদুল কুদ্দুস, মহাসচিব হাফেজ আবুল কাসেম, ইমাম কল্যাণ সমিতি সভাপতি পীর সাহেব মাওলানা কুতুবুল ইসলাম মাজহারী, সেক্রেটারী জেনারেল মুফতি আবু সালেহ, ইমাম মুয়াজ্জিন পরিষদ সেক্রেটারী মুফতি মাহমুদুল হাসান, মাদ্রাসা কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মাওলানা মহিউদ্দীন মাসুম, সেক্রেটারী মাওলানা এখলাছ উদ্দীন, তালিমুল কুরআন সোসাইটি মুফতি আবদুল হালিম, মহাসচিব মাওলানা সিজরাজুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা মুহাম্মদ ইখলাস উদ্দিন, মাওলানা আবু হানিফ নেছারী, অধ্যক্ষ মাওলানা মশিউর রহমান, হাফেজ ফারুক হোসাইন, প্রফেসর মাওলানা ইসহাক মাদানী, মাওলানা এহতেশামুল হক, নাস্তিক-মুরতাদ প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মাওলানা আব্দুল ক্দ্দুুস আল কাসেমী, মহাসচিব শাইখ আব্দুল কাউয়ূম জাতীয় তাফসীর পরিষদ সভাপতি মাওলানা আব্দুল আখির ও মহাসচিব মাওলানা আবু দাউদ যাকারিয়া, ইসলাহুল মুসলিলিমিন সভাপতি মুফতি আবুল বাশার, মহাসচিব মুহাদ্দিস হাসানুল ইমাম, জাতীয় মুফাসসিরিন পরিষদ সভাপতি মাওলানা বেলাল হোসাইন ও সেক্রেটারী মাওলানা নুরুল আমীন, ইসলাহুল উম্মাহ সভাপতি আবু হানিফ নেসারী,জাতীয় ইমাম উলামা পরিষদের সভাপতি শায়খুল হাদীস মাওলানা ফজলুর রহমান ও মহাসচিব মাওলানা এবি.এম শফিকুল্লাহ, মাদরাসা মসজিদ ও খানকা ঐক্যপরিষদ সভাপতি মাওলানা রফিকুর রহমান ও সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা গোলাম কিবরিয়া, আল কুরআন ফাউন্ডেশন সভাপতি মুফতি জামাল উদ্দীন ও সেক্রেটারি মুফতি ইসহাক প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ