ঢাকা, শনিবার 19 October 2019, ৪ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

তুরস্কে আমিরাতের দুই ‘গুপ্তচর’ আটক

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই নাগরিককে আটক করেছে তুরস্ক। নিহত সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার সঙ্গে তাদের যোগাসাজশ এবং দেশটিত বসবাসকারী আমিরাতের ভিন্ন মতাবলম্বিদের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ রয়েছ তাদের বিরুদ্ধে। তুরস্কের রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম আনাদুলুর বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে আল-জাজিরা।

গতকাল শুক্রবার তুরস্কের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘প্রথম ব্যক্তির তুরস্কে আগমন সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার সঙ্গে সম্পর্কিত কিনা,তা তদন্ত করে দেখছি আমরা। গত ছয় মাস ধরে ওই ব্যক্তিকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল।’

তিনি আরও বলেন,‘এটা সম্ভব যে গুপ্তচররা আরব নাগরিকদের সম্পর্কে তথ্য নিতে এ দেশে আসতে পারেন। তুরস্কে বাস করা রাজনৈতিক ভিন্ন মতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে তারা গুপ্তচরবৃত্তি করতে পারেন।’

আটক ওই দুই ব্যক্তির ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে আনাদুলুর প্রতিবেদনে। তাদের বিরুদ্ধে আরব আমিরাতের হয়ে তুরস্কে গুপ্তচরভিত্তির অভিযোগ এনে শুক্রবার আদালতে হাজির করা হয়।

তুরস্কের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার কয়েকদিন পর ২০১৮ সালের অক্টোবরে তাদের একজন তুরস্কে প্রবেশ করে। পরবর্তীতে সহকর্মীকে কাজে সহায়তা করতে দ্বিতীয় জন তুরস্কে যায়।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কঠোর সমালোচক ছিলেন খাসোগি। যিনি গত বছর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসাল অফিসে প্রবেশের পর নিখোঁজ হন। পরে খাসোগি খুন হওয়ার কথা স্বীকার করে সৌদি আরব। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএসহ ইউরোপের কয়েকটি দেশ মনে করে, যুবরাজ মোহাম্মদ সালমানের নির্দেশেই খুন করা হয় খাসোগিকে।

তুরস্ক আটক হওয়া ব্যক্তিদের ল্যাপটপ জব্দ করেছে। সংবাদপত্র সাবার খবরে বলা হয়, তারা বেশ কিছু মানুষের টেলিফোন নম্বর সংগ্রহ করছিল। যার মধ্যে একজন খাসোগি হত্যার সঙ্গে সম্পৃক্ত। তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এদিকে আটক দুজন স্বীকার করেছেন,তারা আমিরাতের হয়ে বিভিন্ন আরব দেশের নাগরিকদের ওপর গুপ্তচরবৃত্তি করতেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ