ঢাকা, বুধবার 24 April 2019, ১১ বৈশাখ ১৪২৬, ১৭ শাবান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বারইয়ারহাট পৌরসভায় অতিরিক্ত টোল আদায়ে শ্রমিকদের মাঝে অসন্তোষ

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌরসভায় কোন প্রকার কারণ ছাড়াই অতিরিক্ত টোল আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে শ্রমিক ও পরিবহণ মালিকের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। শ্রমিকরা অতিরিক্ত টোল দিতে না চাইলে জোরপূর্বক টোল নেয়া হয় বলে একাধিক চালক অভিযোগ করেন। বারইয়ারহাট পৌর মিনিবাস ইমা পরিবহণ শ্রমিকরা জানান, প্রত্যেক বছর বারইয়ারহাট পৌরসভার ইমা ও মিনিবাস স্ট্যান্ড ইজারা দেয়া হয়। গত ১৪২৫ বাংলায় স্ট্যান্ডটি ইজারা নেন নাজমুল হাসান সেতু। গত বছর তিনি কাউকে না জানিয়ে ১৫ টাকার টোল ২০ টাকা আদায় করতে শুরু করে। এসময় শ্রমিকরা প্রতিবাদ জানালে তাদের হুমকী দেয়া হয়। চলতি বছর অর্থ্যাৎ ১৪২৬ সনে আবারো বারইয়ারহাট পৌরসভা থেকে স্ট্যান্ডটি ইজারা নেন তিনি। কিন্তু বুধবার থেকে (১৭ এপ্রিল) আবারো ২০ টাকার টোল বাড়িয়ে নেয়া হচ্ছে ৩০ টাকা। এতে করে শ্রমিকদের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। কোন শ্রমিক অতিরিক্ত টোল দিতে অস্বীকার করলে দেয়া হচ্ছে হুমকী। এই বিষয়ে চট্টগ্রাম বাস মিনিবাস হিউম্যান হলার শ্রমিক ইউনিয়ন বারইয়ারহাট শাখার সাধারণ সম্পাদক আরিফ উদ্দিন মাসুদ, কোন প্রকার কারণ ছাড়াই ইজারাদার নাজমুল হাসান সেতু চলতি বছর ২০ টাকার টোল ৩০ টাকা বৃদ্ধি করেছে। আমি অতিরিক্ত টোল আদায়ের প্রতিবাদ করেছি। কিন্তু বারইয়ারহাট পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন বিষয়টি জানেন না। অথচ এখন শ্রমিকদের আগের মতো আয় হয় না। এই বিষয়ে বারইয়ারহাট পৌর ইমা মিনিবাস ইজারাদার নাজমুল হাসান সেতু জানান, ইজারার টাকা তোলার জন্য বারইয়ারহাট পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমিত নিয়ে তিনি টোল বাড়িয়েছেন। তিনি অন্যায় ভাবে কারো উপর জুলুম করছেন না। যিনি অভিযোগ করেছেন তিনি কেন গাড়ি প্রতি টাকা নেন? বারইয়ারহাট পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন ভিপি জানান, পৌরসভা ইজারার কোন টোল বৃদ্ধি করেনি। অতিরিক্ত টোল আদায় করলে শ্রমিকদের উপর অন্যায় করা হচ্ছে। তিনি জানান, আমি খোঁজখবর নিয়ে দেখছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ