ঢাকা, রোববার 5 May 2019, ২২ বৈশাখ ১৪২৬, ২৮ শাবান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

খুলনার শিববাড়ী মোড় মাহেন্দ্র ও অতুলের দখলে ॥ জনভোগান্তি বাড়ছে

খুলনা অফিস : খুলনার প্রাণকেন্দ্র শিববাড়ী মোড়ে মাহেন্দ্র ও অতুলের স্ট্যান্ড থাকায় অগোছালো পরিবেশ ও জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। তাছাড়া গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে সব সময় যানজট ও ছোট বড় দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে। নগরীর ডাকবাংলো মোড়, ফেরিঘাট, মডার্ন ফার্নিচার মোড়, শান্তিধাম মোড়, পাওয়ার হাউজ মোড়, পিটিআই মোড়, গ্লাক্সো মোড়, দৌলতপুর, নতুন রাস্তাসহ রয়েছে ইজিবাইক, মাহেন্দ্র স্ট্যান্ড। কয়েক বছর ধরে শহরে অতুল, মাহেন্দ্র ও ব্যাটারি চালিত রিক্সা চলাচল দিন দিন বাড়ছে।
মোটর বাইক চালক আশরাফুর রহমান বলেন, রাস্তায় তারা অনেক গতিতে গাড়ি চালায়। একবার শিববাড়ী মোড় ক্রস করার সময় পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। আমার এখনও হাতে প্লাস্টার আছে।
খুলনা নর্দান ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী মো. রাজেন বলেন, প্রতিদিন শিববাড়ী মোড়ে অনাকাক্সিক্ষত অতুল ও মাহেন্দ্র দাঁড়িয়ে থাকায় রাস্তা পারাপার হতে ভয় করে। আর ব্যাটারি চালিত রিক্সা এতো দ্রুতগতিতে চলাচল করে, যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
নগরীর মাহেন্দ্র চালক নিজামুর রহমান কালু বলেন, খুলনায় মাহেন্দ্র ও অতুলের ড্রাইভার অনেকেই বাইরের এলাকার গাড়ি শহরে প্রবেশ করার কারণে যানজট হয়।
এডভোকেট মাসুমবিল্লাহ বলেন, শিববাড়ী মোড় অনেক গুরুত্বপূর্ণ মোড়, বিভিন্ন রাস্তার সংযোগের কেন্দ্রস্থল। স্থানটিতে কোনো মাহেন্দ্র, অতুল ও ব্যাটারি চালিত রিক্সা স্ট্যান্ড করা উচিত না।
ঢাকাগামী টুঙ্গিপাড়া পরিবহণ ড্রাইভার হাফিজ বলেন অনেক সময় বড় গাড়ি নিয়ে শিববাড়ী মোড় ক্রস করতে গেলে মাহেন্দ্র, অতুল ও ব্যাটারি চালিত রিক্সা থাকার জন্য বড় গাড়ি ঘুরতে ঝামেলা পোহাতে হয়।
কেএমপি ডিসি দক্ষিণ মো. এহসান শাহ বলেন, শহরে যানজট নিরসনের জন্য মেয়রের সাথে কথা বলব এবং সামনে রমযান মাসে নগরীতে যানজট মুক্ত করার জন্য ব্যাটারি চালিত রিক্সার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিব।
খুলনা সিটি কর্পেরেশনের প্যানেল মেয়র ১ মো. আমিনুল ইসলাম মুন্না বলেন, যানজট মুক্ত করার জন্য একবার বৈঠক করেছি। মেয়র ছিলেন না। তবে শিববাড়ী মোড় একটি গুরুত্বপূর্ণ মোড়। সেখানে কিছু মাহেন্দ্র, অতুল ও ইজিবাইক সব সময় দাঁড়িয়ে থাকে। কয়েক দিনের মধ্যে শিববাড়ী মোড়ের অবৈধ স্ট্যান্ডের বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ