ঢাকা, রোববার 12 May 2019, ২৯ বৈশাখ ১৪২৬, ৬ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

আজ পশ্চিমবঙ্গের ৮ আসনে নির্বাচন

১১ মে, এনডিটিভি : আজ রোববার ভারতের লোকসভার ষষ্ঠ দফার নির্বাচন শুরু হবে। এ দফায় আট রাজ্যের ৫৯ আসনে নির্বাচন হবে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের আটটি আসন রয়েছে। কাল নির্বাচন আয়োজনের সব প্রস্তুতি শেষ করেছে নির্বাচন কমিশন।

ভারতের যে আটটি রাজ্যে নির্বাচন হবে, সেগুলো হলো বিহার (৮ আসন), হরিয়ানা (১০ আসন), জম্মু ও কাশ্মীর (১টি আসন), ঝাড়খন্ড (৪ আসন), মধ্যপ্রদেশ (৮ আসন), উত্তর প্রদেশ (১৪ আসন), দিল্লি (৭ আসন) এবং পশ্চিমবঙ্গ (৮ আসন)।

আর পশ্চিমবঙ্গে এই নির্বাচন হচ্ছে পাঁচ জেলার আটটি আসনে। আসন আটটি হলো মেদিনীপুর, ঘাটাল, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বিষ্ণুপুর, তমলুক ও কাঁথি। এর আগে পাঁচ দফায় পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে ২৫টিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাকি নয়টি আসনে নির্বাচন হবে শেষ দফায় ১৯ মে। 

এই নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে রাজ্যের আটটি আসনে ৭৭০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন। এবার সব ভোটকেন্দ্রেই নিয়োগ করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। নির্বাচন হচ্ছে ১৫ হাজার ৪২৮টি বুথে। নির্বাচন চলার সময় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য এবার প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১৪২টি কুইক রেসপন্স টিম।

এবার ভাগ্য নির্ধারিত হবে এই রাজ্যের বেশ কয়েকজন নেতা–মন্ত্রীর। সেই সঙ্গে অভিনেতা দেবের।

ঘাটাল আসনে লড়ছেন অভিনেতা দেব। এখানে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছেন দুজন। তাঁরা হলেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ও বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ এবং বামফ্রন্ট প্রার্থী তপন গঙ্গোপাধ্যায়।

মেদিনীপুর আসনে লড়ছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন তৃণমূলের মন্ত্রী মানস ভূঁইয়া, বামফ্রন্টের বিপ্লব ভট্ট এবং কংগ্রেসের শম্ভুনাথ চট্টোপাধ্যায়।

মাওবাদী–অধ্যুষিত ঝাড়গ্রামে লড়ছেন তৃণমূলের বীর বাহা সরেন টুডু, বিজেপির কুনার হেমব্রম এবং কংগ্রেসের যজ্ঞেশ্বর হেমব্রম।

কাঁথিতে লড়ছেন সাবেক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা শিশির অধিকারী। তার সঙ্গে আরও লড়ছেন বিজেপির দেবাশীষ সামন্ত, বামফ্রন্টের পরিতোষ পট্টনায়েক এবং কংগ্রেসের দীপক দাস।

তমলুকে লড়ছেন তৃণমূলের দিব্যেন্দু অধিকারী, বিজেপির কীর্তনীয়া সিদ্ধার্থ নস্কর, বামফ্রন্টের ইব্রাহিম আলী এবং কংগ্রেসের লক্ষ্মণ শেঠ। লক্ষ্মণ শেঠ একসময় সিপিএমের প্রভাবশালী নেতা ও সাংসদ থাকলেও এবার তিনি লড়ছেন কংগ্রেসের টিকিটে।

পুরুলিয়া আসনে লড়ছেন তৃণমূলের মৃগাঙ্ক মাহাত, বিজেপির জ্যোতির্ময় মাহাত, বামফ্রন্টের বীর সিং মাহাত এবং কংগ্রেসের নেপাল মাহাত। নেপাল মাহাত এখন কংগ্রেসের একজন বিধায়ক।

বাঁকুড়া আসনে তৃণমূলের টিকিটে লড়ছেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিজেপির চিকিৎসক প্রার্থী সুভাষ সরকার এবং বামফ্রন্টের অমিয় পাত্র।

বিষ্ণুপুরে লড়ছেন তৃণমূলের শ্যামল সাঁতরা, বিজেপির সৌমিত্র খাঁ, বামফ্রন্টের সুনীল খাঁ এবং কংগ্রেসের নারায়ণ চন্দ্র খাঁ। তবে বিজেপির সৌমিত্র খাঁ ২০১৪ সালে তৃণমূলের টিকিটে সাংসদ হয়েছিলেন। এবার তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়ে বিজেপির টিকিটে লড়ছেন।

মমতাকে ‘মোদি ট্যাবলেট’ খাওয়ার পরামর্শ

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মধ্যে বাগযুদ্ধ চলছেই। তাতে এবার ঘি ঢাললেন বিজেপি দলীয় ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। তিনি মমতা বন্দোপাধ্যায়কে ‘মোদি ট্যাবলেট’ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

সাত দফার লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ দফার ভোট অনুষ্ঠিত হবে আজ রোববার। নির্বাচনের শুরু থেকে মোদি-মমতার কথার লড়াই প্রত্যক্ষ দেশটির মানুষ। এবার ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী তার দলের নেতা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হয়ে মমতাকে তোপ দাগলেন।

শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সদর আসন তমলুকের বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্করের নির্বাচনী জনসভা ছিল। তার সমর্থনে ওই জনসভায় ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব বক্তব্য দেন। বিপ্লব দেব সেখান থেকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুঁশিয়ারি দিয়ে এমন মন্তব্য করেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘দিদি আমি আপনার ছোট্ট ভাইয়ের মতো। ত্রিপুরা থেকে বাংলাতে সভা করার জন্য আমি এসেছিলাম। বর্ধমানে আমার দুটি সভা বন্ধ করে দিয়েছেন। অনুমতি দেননি।’

তিনি মমতাকে হুশিয়ার করে বলেন, ‘আমার জনসভা বাতিল করে বাংলার মানুষকে আটকাতে পারবেন না। আমার জনসভা যত বন্ধ করবেন বাংলার বাঁধ তত ভাঙবে। আর আপনাকে চিরতরে বিদায় করবে। তার জন্য বাংলার মানুষ তৈরি হয়ে বসে আছে।’

নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ত্রিপুরা মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ২৩ মে যখন ফলাফল ঘোষণা করা হবে, তখন দিদির জন্য আমাকে ট্যাবলেট কিনে আনতে হবে। দিদির মাথা ব্যাথা হবে আমি জানি। মাথা ব্যাথা দূর করতে আমি তার মোদি ট্যাবলেট নিয়ে আসব।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ