ঢাকা, রোববার 12 May 2019, ২৯ বৈশাখ ১৪২৬, ৬ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বৈষম্যের অবসান ঘটাতে শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ অপরিহার্য

স্টাফ রিপোর্টার: শিক্ষার মান উন্নয়ন ও বিশ্বায়ন উপযোগী করতে শিক্ষাকে জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছেন স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারি ফেডারেশন। তারা বলেন, শিক্ষা ব্যবস্থায় এখনও অনেক  বৈষম্য রয়েছে। এ বৈষম্যের সম্পূর্ণ অবসান ঘটাতে শিক্ষা ব্যবস্থাকে জাতীয়করণ একান্ত অপরিহার্য।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবি জানান সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী, বাংলাদেশ অধ্যক্ষ পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক কাজী মিজানুল ইসলাম, স্বাধীনতা মাদ্রাসা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান নাঈম, বাংলাদেশ প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।
শাহজাহান আলম সাজু বলেন, বর্তমান জনবান্ধব সরকারের আমলে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের অবস্থার পরিবর্তনসহ শিক্ষা ব্যবস্থার উল্লেখযোগ্য উন্নতি হয়েছে। তারপরও এখনও অনেক বৈষম্য রয়েছে। এ বৈষম্যের সম্পূর্ণ অবসান করার জন্য শিক্ষা ব্যবস্থাকে জাতীয়করণ একান্ত অপরিহার্য।
তিনি বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও বিশ্বায়ন উপযোগী করতে বর্তমান সরকারের বর্তমান মেয়াদে শিক্ষা ব্যবস্থাকে জাতীয়করণ করতে হবে। শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ না হওয়া পর্যন্ত বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনুরূপ পূর্ণাঙ্গ উৎসব, চিকিৎসা ভাতা ও যৌক্তিক বাড়ি ভাড়া প্রদান করতে হবে। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর, মাদরাসা ও কারিগরি অধিদফতরে ও শিক্ষাবোর্ডসহ শিক্ষা প্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে বেসরকারি শিক্ষকদের প্রতিনিধিত্ব দাবি করেছেন।
তিনি বলেন, শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ, বেসরকারী শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ডে অতিরিক্ত চাঁদা কর্তনের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ এবং বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহনের পূর্বে অতিরিক্ত চাঁদার অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান করতে হবে। এছাড়া পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, বাড়ি ভাড়া, মেডিকেল ভাতা প্রদান করতে হবে।
শাজাহান আলম সাজু বলেন,বর্তমান সরকার গত ১০ বছরে শিক্ষা নীতি প্রণয়ন, জাতীয় বেতন স্কেল প্রদান, বিনামূল্যে নতুন বই বিতরণ,অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীদের জন্য কল্যাণ এবং অবসর বোর্ডে এক হাজার ৬২৭ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ প্রদান, ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট, ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা প্রদান,বাড়ী ভাড়া ও মেডিকেল ভাতা বৃদ্ধি করেছে। তবুও অনেক সমস্যা বিরাজমান। এসব সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায় শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ