ঢাকা, রোববার 12 May 2019, ২৯ বৈশাখ ১৪২৬, ৬ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ইবিতে বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

সরকারি কর্মব্যবস্থাপনা পদ্ধতির আওতায় বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভা গতকাল শনিবার (১১ মে) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবন সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান-এর সভাপতিত্বে বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু এ সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী (রাশিদ আসকারী) প্রধান অতিথি এবং ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য প্রদান করেন।  রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। সভায় উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন) ও এপিএ ফোকাল পয়েন্ট মোঃ নওয়াব আলী খান চুক্তি সংক্রান্ত নির্দেশনা উপস্থাপন এবং সভাটি সঞ্চালনা করেন।
সবশেষে অনুষ্ঠিত উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ সরওয়ার মুর্শেদ, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. অরবিন্দ সাহা, লোক প্রশাসন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. জুলফিকার হোসেন, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুস শাহীদ মিয়া, এবং বিশ্ববিদ্যালয় ইন্সটিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’র পরিচালক প্রফেসর ড. কে এম আব্দুস ছোবহান।
সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ, সভাপতিবৃন্দ, হল প্রভোস্টবৃন্দ এবং অফিস প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী (রাশিদ আসকারী) বলেন, আমাদের দক্ষ শিক্ষক-শিক্ষার্থী রয়েছেন। এর মাঝে সুন্দর ব্যবস্থাপনা রুপরেখা দরকার। বিভাগ, হল, দপ্তরগুলো এক বছরে কী কী করবে তা উল্লেখ করে আমাদের সঙ্গে চুক্তি করবে এবং বছরশেষে সেগুলোর মূল্যায়ন হবে। আমাদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।
সভাপতির বক্তব্যে প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান বলেন, আমরা যে যে জায়গায় আছি সে জায়গায় কাজটা ঠিকমতো করার কমিটমেন্ট আমাদের থাকতে হবে। স্ব-স্ব অবস্থানে আমরা যদি দায়িত্বশীল থাকি তাহলে কোন ক্ষেত্রেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আর পিছিয়ে থাকবে না। তিনি বলেন, আমরা যেন কাজ ফাঁকি না দিই, এ ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে।
ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, রাষ্ট্র আমাদেরকে অর্থ দিচ্ছে কিন্তু বিনিময়ে আমরা কী দিচ্ছি সে বিষয়ে নিজেকে পরীক্ষায় নেবার সুযোগ আমাদের এসেছে। তিনি আরও বলেন, মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রায়ই বলে থাকেন, লীডারশীপ এবং টীমওয়ার্ক-এর সুন্দর সমন্বয়েই কেবল সফলতা সম্ভব। আমরা সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ