ঢাকা, বুধবার 15 May 2019, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ৯ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভারতের চেন্নাই এফসি-আবাহনী লিমিটেডের ম্যাচ আজ ঢাকায়

স্পোর্টস রিপোর্টার: এএফসি ক্লাব কাপ ফুটবলের ফিরতি ম্যাচে ভারতের চেন্নাইন এফসির বিপক্ষে আজ বুধবার মাঠে নামছে স্বাগতিক আবাহনী লিমিটেড। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আবাহনী ও চেন্নাইনের ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৭ টায়। খেলাটা প্রতিবেশী দুই দেশের দুটি ক্লাব দলের হলেও মাঠে নামলে সেটা হয়ে যায় দুই দেশের। আবাহনী ও চেন্নাইন এএফসির আড়ালে লড়াইটা আসলে বাংলাদেশ-ভারতের ফুটবলেরই।ক্লাব পর্যায়ে গত এক মাসে দুইবার দেখা হয়েছে বাংলাদেশ ও ভারতের ফুটবলারদের। ১৭ এপ্রিল ঢাকায় খেলে গেছে মিনারভা পাঞ্জাব, ৩০ এপ্রিল আবাহনী খেলে এসেছে আহমেদাবাদ থেকে চেন্নাইন এফসির বিপক্ষে। বাংলাদেশের ক্লাবটি একবারও জিততে পারেনি। মিনারভা পাঞ্জাবের সঙ্গে ঘরের মাঠে ২-২ গোলে ড্র করেছেন, আহমেদাবাদে গিয়ে হেরে এসেছে ১-০ গোলে।এবার ঘরের মাঠে তাদের সামনে প্রতিশোধের মিশন। যদিও পুরো শক্তির দল নিয়ে প্রতিপক্ষের মোকাবেলায় নামতে পারছেনা আবাহনী। কারণ ইনজুরি। ডিফেন্ডার তপু বর্মণ ও ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার আতিকুর রহমান ফাহাদের পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে সম্প্রতি। দুজনের কেউই এ মৌসুমে আর মাঠে নামতে পারবেন না। আরেক ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশা এবং ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ওয়েলিংটন প্রিওরিও ইনজুরি আক্রান্ত।

আবাহনীর পর্তুগিজ কোচ ফাবিও লেমস ও তাই দুশ্চিন্তায়। গতকাল মঙ্গলবার বাফুফে ভবনে ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দুই দলের কোচই জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। আবাহনীর কোচ ফাবিও লেমস বলেছেন, ‘এ ম্যাচ জিততে না পারলে আমাদের আর কোনো সম্ভাবনাই থাকবে না। আমার ঘরের মাঠের ম্যাচটি জেতার জন্যই মাঠে নামবো।’ দলের পুরো শক্তি নিয়ে মাঠে নামতে না পারার আক্ষেপ ও শোনা যায় তার কন্ঠে। ‘আমরা যদি বলি তপু ও ফাহাদকে মিস করবো না, তাহলে মিথ্যা বলা হবে। জাতীয় দলের দুই ফুটবলার তপু-ফাহাদ আমাদের দলেরও গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। ফুটবলে ইনজুরি হবেই, কিন্তু ইনজুরিতে মৌসুম শেষ হয়ে যাওয়া খুব দুর্ভাগ্যজনক। দলের আরও দুজনের ছোট-খাটো ইনজুরি আছে।’ গ্রুপ ‘ই’ তে শীর্ষ দল চেন্নাইয়ানের (৭ পয়েন্ট) চেয়ে তিন পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আবাহনীর কোচ অবশ্য জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী, ‘দুই সপ্তাহ আগে চেন্নাইয়ান এফসির মাঠে হেরে গেলেও তাদের খেলার ধরন সম্পর্কে জানতে পেরেছি। সেদিন কেন হেরেছিলাম সেটা খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি। আশা করি, এবারের মোকাবেলায় আমরাই জিতবো। ম্যাচটাকে আমরা ফাইনাল হিসেবে নিচ্ছি। এটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ।’

চেন্নাইনের ইংলিশ কোচ জন গ্রেগরির চোখেও জয়ের নেশা, ‘আবাহনী কঠিন প্রতিপক্ষ। তবে আমরা জয়ের জন্য সেরা খেলাটাই খেলবো। এ ম্যাচ জিতলে কোয়ালিফাই করার ক্ষেত্রে আমরা অনেকটাই এগিয়ে যাবো।’ আবাহনীর প্রশংসা করে বলেছেন, ‘আমাদের মাঠে আবাহনী খুব ভালো খেলেছিল। তাদের থ্রো-ইন বেশ বিপদজনক। আবাহনীতে কয়েকজন ভালো মানের দীর্ঘদেহী খেলোয়াড় আছে। আগামীকাল সম্ভবত গ্রুপের সবচেয়ে কঠিন ম্যাচ খেলতে যাচ্ছি আমরা।’ পয়েন্ট টেবিলের অবস্থান অনুযায়ি গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচে আবাহনীর পয়েন্ট ৪। চেন্নাইন এফসি ৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে।

 দুই দলের জন্যই এই ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। তবে আবাহনীর জন্য একটু বেশি। এ ম্যাচ জিততে না পারলে টিকে থাকার কোনো সুযোগই থাকবে না আবাহনী। চেন্নাইন হারলেও পড়বে না আবাহনীর মতো অতটা বিপদে। আবাহনী আগের তিন ম্যাচের একটি জিতেছে নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাবের বিপক্ষে। অন্য দিকে চেন্নাইন এএফসি নিজ দেশের ক্লাব মিনারভা পাঞ্জাবের সঙ্গে ড্র করে পরের দুই ম্যাচে হারিয়েছে আবাহনী ও নেপালের দলটিকে। গ্রুপের অন্য দুই দল ভারতের মিনার্ভা পাঞ্জাবের তিন ও নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাবের এক পয়েন্ট। চার দলই তিনটি করে ম্যাচ খেলেছে এ পর্যন্ত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ