ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 May 2019, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভারতের চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে আবাহনীর নাটকীয় জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার: এএফসি ক্লাব কাপ ফুটবলে ভারতের চেন্নাইন এফসিকে হারিয়ে প্রথম জয়ের দেখা পেল আবাহনী লিমিটেড। গতকাল বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের খেলায় স্বাগতিক আবাহনী ৩-২ গোলে হারিয়েছে চেন্নাইন এফসিকে। এই জয়ে এএফসি কাপে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন জিইয়ে রাখলো আকাশী নীল শিবির। অ্যাওয়ে ম্যাচে হারলেও ঘরের মাঠে তারা হারিয়ে দিয়েছে চেন্নাইন এফসিকে। এই জয়ে চার ম্যাচে সাত পয়েন্ট ঢাকা আবাহনীর। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট চেন্নাইন এফসরিও।গুরুত্বপূর্ণ দুই ফুটবলার তপু বর্মণ ও আতিকুর রহমান ফাহাদ ছাড়াই মাঠে নেমেছিল আবাহনী। ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশাও খেলতে পারেননি। এতে তেমন প্রভাব দেখা যায়নি ধানমন্ডির ক্লাবটির খেলায়। পুরো মাঠ জুড়ে খেলেছে তারা। আক্রমণের দিক দিয়েও এগিয়ে ছিলেন নাবীব নেওয়াজ জীবনরা। কিন্তু গোল মিসের মহড়াই দিয়েছে আকাশী নীল শিবির। বার বার আক্রমন করেও গোলের দেখা পাননি জীবন। দলকে গোল এনে দিতে পারেননি নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে সিজোবা-ও। কিন্তু সেই অভাব দূর করে দিয়েছেন বাকিরা।

শুরুটা ম্যাড় ম্যাড়ে। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা আবাহনীর খেলার তেজও বেড়েছে। প্রতিপক্ষের ডেরায় বার বার আঘাত হেনেছে। কাজের কাজ কিছুই হয়নি আবাহনীর। কিন্তু তুলনামূলক বল পজিশনে পেছনে থেকেও গোলের দেখা পেয়ে যায় চেন্নাইন এফসি। ম্যাচের আট মিনিটে বাঁ প্রান্ত দিয়ে কর্ণার কিক নেন ইসাক ভানমালসাওয়া। জটলা তৈরী হয় আবাহনীর গোল সীমানায়। উড়ে আসা বল ঠেকাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন সবাই। সেই ফাকে শট করে গোলকিপার শহিদুল আলম সোহেলকে বোকা বানিয়ে গোল আদায় করে নেন ভিনিথ (১-০)। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়ের সঙ্গে দৌঁড়ে এগিয়ে যান হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড বেলফোর্ট। বক্সের ভেতরে ঢুকেই ডানপায়ে শট করে পরাস্ত করেন চেন্নাইনের গোলকিপার করনজিৎ সিংকে। লাফিয়ে পড়েও বল রুখতে পারেননি তিনি (১-১)। মিনিট চার পর এবার এগিয়ে যায় আবাহনীই। ফ্রিকিক থেকে শট নেন আফগানিস্তানের মাসিহ সাইঘানি। সেই বল বাক খেয়ে গোলকিপারের হাতের নাগালের বাইরে দিয়ে কোনাকুনিভাবে জালে জড়িয়ে যায় (২-১)।  উল্লাসে মেতে উঠে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম।

কিন্তু তাদের সেই উল্লাস স্থায়ী হয়নি বেশিক্ষণ। ৭৪ মিনিটে আরও এক গোল করে ম্যাচে সমতা আনে চেন্নাইন। জযের অপেক্ষায় থাকা আবাহনীর কাছ থেকে পয়েন্ট খুইয়ে নিল তারা। 

আকাশী নীল শিবিরের বিপদ সীমানায় জটলার সৃষ্টি হয়। বল ধরতে সোহেল এগিয়ে আসেন। ঠিক সেই মূহুর্তে বক্সের ভেতরে থাকা সুযোগ সন্ধানী ইসাক ভানমালসাওয়া ডান পায়ের শটে বল জালে জাড়িয়ে দেন (২-২)। আবারো এগিয়ে যায় আবাহনী। এবার নায়ক মামুনুল ইসলাম। ঘরোয়া আসরে নিস্প্রভ সেই মামুনুলই দলকে জয় এনে দিলেন। বক্সের ডান প্রান্ত দিয়ে দুরপাল্লার এক শটে জাল কাঁপান এই মিডফিল্ডার (৩-২)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ