ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 May 2019, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ইসলামী বিধানকে জঙ্গীবাদের লক্ষণ বলায় পিযূষকে গ্রেফতার করতে হবে -মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী

দাড়ি রাখা, টাখনুর উপরে কাপড় পরা, সুন্নতি লেবাস, ইসলামী বিধি-বিধান পালন ও ইসলামী শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় আগ্রহ প্রকাশ করাকে জঙ্গীবাদের লক্ষণ বলে কটূক্তি করায় সম্প্রীতি বাংলাদেশ এর প্রধান পিযূষকে গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের জনগণ দিন দিন ইসলামী অনুশাসন মেনে ধার্মিক হতে দেখে ইসলাম বিদ্বেষী নাস্তিকগোষ্ঠীর গাত্রদাহ শুরু হয়ে গেছে। দাড়ি-টুপি, সুন্নতি লেবাস ও  ইসলামী বিধান পালনের মাধ্যমে এ জাতির আদর্শিক উন্নতি-অগ্রগতির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। যা নাস্তিকগোষ্ঠী সহ্য করতে পারছে না। ইসলামের এ অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে ইসলাম বিরোধী শক্তিগুলো বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রীতি বাংলাদেশ এর প্রধান পিযুষ বন্দোপাধ্যায়ের “জঙ্গী সদস্য সনাক্তকরণ” তারই একটি অংশ। এদেশের ধর্মপ্রাণ জনতা তা কিছুতেই বরদাশত করবে না। অবিলম্বে পিযূষকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক বিচার এবং সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামের উগ্র ও সন্ত্রাসী সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ করতে হবে।
গতকাল বুধবার বিকালে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরস্থ জামিয়া নূরিয়ায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের এক জরুরি বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব মাওলানা হাবীবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, মাওলানা সাজেদুর রহমান ও  মাওলানা ফিরোজ আশরাফী প্রমুখ।
সভায় অবিলম্বে পিযুষকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক বিচার এবং সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামের উগ্র ও সন্ত্রাসী সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ করার দাবিতে বাদজুমা সারাদেশে বিক্ষোভ পালনের আহ্বান জানান। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের উদ্যোগে বাদজুমা কামরাঙ্গীরচর জামিয়া নূরিয়া থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ