ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 May 2019, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অন্ধ ভিক্ষুক দম্পত্তির শিশু চুরি ॥ আটক ১

রংপুর অফিস: রংপুর নগরীর এরশাদ নগর এলাকার অন্ধ ভিক্ষুক দম্পত্তি রায়হান মিয়া (৩৫) ও  নিলুফা বেগম (২৮)।  দুজনেই পেশায় ভিক্ষুক।  তাদের দুই মেয়ে রেহেনা ও (৫) আর্জিনা (৩) । গত শুক্রবার বিকেলে সাড়ে ৩ বছরের এই অর্জিনাকে  চুরি করে একজন ভিক্ষুক। রোববার দুপুরে মিঠাপুকুর উপজেলার ভাংনি ইউনিয়নে জগনান্দপুর এলাকা থেকে শিশু চুরির অভিযোগে সুরভি বেগমকে স্থানীয় লোকজন আটক করে পুলিশে দেয়। শিশুটিকে তার বাবা মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়।
স্থানীয়দের অভিযোগ সুরভি বেগম এর আগেও একাধিক শিশুকে চুরি করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, অপরহণের কদিন আগে ভিক্ষুক রায়হানের সাথে ধর্ম ভাইয়ের সম্পর্ক গড়ে তোলে সুরভি বেগম। ঘটনার দিন শুক্রবার বিকেলে সুযোগ বুঝে সুরভি বেগম রায়হান মিয়ার সাড়ে ৩ বছরের মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায়।
অন্ধ দম্পত্তি তাদের মেয়েকে অনেক খোজাখুজি করে সন্ধান পাননি। রোববার দুপুরে মিঠাপুকুর উপজেলার ভাংনি ইউনিয়নে স্থানীয়রা সুরভি বেগমকে শিশুসহ আটক করে। সুরভি বেগম ওই ইউনিয়নের জগনান্দ গ্রামের বাসিন্দা। সে রংপুর শহরের বিভিন্নস্থানে ভিক্ষা করত। ভিক্ষার করার সূত্র ধরেই রায়হানের সাথে ধর্মভাই সম্পর্ক  করে তার সন্তান চুরি করে নিয়ে যায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ সুরভি বেগমে ভিক্ষাবৃত্তির আড়ালে তার বিরুদ্ধে শিশু চুরির অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয় ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য রবিউল ইসলাম জানান, রোববার সকালে তার ঘরে শিশুর কান্নার আওয়াজ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে পুলিশের নিকট দেয়া হয়। মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস জানান বিষয়টি  তাজহাট থানার।
তাদের তাজহাট থানায় প্রেরণ করা হয়েছে । তাজহাট থানার ওসি শেখ রোকোনুজ্জামান শিশু চুরির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ