ঢাকা, বুধবার 23 October 2019, ৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের শেষ পর্বের ভোট চলছে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বারাণসী থেকে প্রার্থী হয়েছেন কংগ্রেসের অজয় রাই

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম ও চূড়ান্ত পর্বের ভোট গ্রহণ করা হচ্ছে।সাতটি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৯টি আসনে স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।তবে পরিস্থিতির কথা বিবেচনায় নিয়ে নির্বাচন কমিশন ঝাড়খন্ড, বিহার ও উত্তর প্রদেশের কয়েকটি কেন্দ্রে বিকাল ৪টার মধ্যে ভোট শেষ করার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে।ভোট দেবেন প্রায় ১০ কোটি ১৭ লক্ষ ভোটার। 

এর মধ্যে কয়েকটি কেন্দ্রের লড়াইকে নিয়ে উত্তেজনার পারদ চরতে শুরু করেছে। খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাগ্য পরীক্ষা হচ্ছে আজ। পাশাপাশি বিহারের পাটনা শাহিব এবং পাটলিপুত্র কেন্দ্রের দিকে নজর থাকবে গোটা দেশের। নজর থাকবে পাঞ্জাবের অমৃতসরের দিকে। আর পশ্চিমবঙ্গের ন টি আসন নিয়েও চর্চা হচ্ছে রাজনৈতিক মহলে। শেষ দফায় তৃণমূল এবং বিজেপি মধ্যে কারা এগিয়ে যায় সেটাই দেখার। নির্বাচন কমিশন এবার পশ্চিমবঙ্গে ৩২৪ ধারা লাগু করেছে এই পরিস্থিতিতে হচ্ছে ভোট।

এ পর্বে উত্তর প্রদেশ ও পাঞ্জাবের ১৩টি করে আসনে, পশ্চিমবঙ্গের নয়টি, আটটি করে বিহার ও মধ্য প্রদেশের, হিমাচল প্রদেশের ৪টি, ঝাড়খন্ডের ৩টি এবং কেন্দ্রশাসিত চন্ডিগড়ের একটি আসনে ভোট হচ্ছে।

এই পর্বের ভোটের মধ্য দিয়ে লোকসভা নির্বাচনের সাত পর্বের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হবে।

এ পর্বের সবেচেয়ে উল্লেখযোগ্য প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উত্তর প্রদেশের বারাণসী আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উল্লেখযোগ্য অন্যান্য প্রাথীদের মধ্যে বিহারের পটনা সাহিবে শত্রুঘ্ন সিনহা, সাসারামে মীরা কুমার, হিমাচল প্রদেশের হামিরপুরে অনুরাগ ঠাকুর, পঞ্জাবের গুরুদাসপুরে সানি দেওল, চন্ডিগড়ে কিরন খের, ঝাড়খন্ডের ধুমকায় শিবু সরেন, পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাট আসনে চলচ্চিত্র তারকা নুসরাত জাহান, যাদবপুর আসনে মিমি চক্রবর্তী, বারাসাতে কাকলি ঘোষ দস্তিদার, ডায়মন্ড হারবারে অভি্ষেক বন্দোপাধ্যায় আছেন।

ভোট গ্রহণের জন্য ১ লক্ষ ১২ হাজার ৯৯৩ টি  ভোটকেন্দ্র স্থাপন করেছে নির্বাচন কমিশন। এ পর্বে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৯১৮ জন।

নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিকে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় ব্যাপক গোলোযোগের কারণে নির্বাচন কমিশন এখানের ভোট কেন্দ্রগুলোতে অতিরিক্ত কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করেছে।

সকালে কলকাতার রয়েড এর জয়েস গার্লস স্কুল কেন্দ্র গিয়ে ভোটারদের লম্বা লাইন দেখা গেছে। সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে ভোটারররা ভোট দিচ্ছেন। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়ায় কোনো দলের সমর্থক ও কর্মীদের ভোটকেন্দ্রের কাছাকাছি দেখা যায়নি।

কেন্দ্র থেকে ৩০০ গজ দূরে টেবিল সাজিয়ে কয়েকজন নির্বাচন কর্মী বসে আছেন। ভোটার এলে শুধু স্লিপটা দিয়ে দিচ্ছেন।

১১ এপ্রিল শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ৬ দফায় লোকসভার ৪৮৪ আসনে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

২৩ মে সব ভোট গণনা করে ওইদিনই ফল প্রকাশের কথা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ