ঢাকা, মঙ্গলবার 18 June 2019, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৪ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভাঙ্গায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহত: আওয়ামীলীগ নেতা শ্রীঘরে

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ভাঙ্গা উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিসের উপ সহকারি প্রকৌশলী সমরজিত চন্দ্র ঘরামীসহ ৩ অফিস সহকারিকে পিটিয়ে আহত ও অফিস ভাংচুরের ঘটনায় এক আওয়ামীলীগ নেতার ঠাঁই হয়েছে শ্রীঘরে।

এ ঘটনায় উপ সহকারি প্রকৌশলী সমরজিত চন্দ্র ঘরামী পিবিএ’কে বলেন, গত রবিবার সকালে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা ও সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক অপু অফিস কক্ষে প্রবেশ করে আমার নিকট ৫টি আর্সেনিকমুক্ত টিউবয়েল দাবি করেন। আমি বে-আইনীভাবে তা দিতে না চাওয়ায় তারা মারধোর শুরু করে এবং অফিসের ভেতরে আমাকে তালাবদ্ধ করতে যায়। এসময় অফিস সহকারি শেখ মো. সেলিমুজ্জামান, মো. সাঈদুল ইসলাম ও বলাই চন্দ্র দাস এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করে। হামলার কারনে আমার মোবাইল ফোন সহ বেশ কয়েকটি দামি জিনিস নষ্ট হয়ে যায়। এক পর্যায়ে উপজেলা প্রশাসনের অন্যান্যরা এগিয়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) হিমাদ্রী খীসা পিবিএ’কে বলেন, সরকারি একজন কর্মকর্তা তার দায়িত্ব পালনে কোন অবহেলা করলে তা উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নিকট লিখিত অভিযোগ দিতে হবে। কিন্তু তা না করে তুচ্ছ ঘটনায় সরকারি অফিসে ঢুকে একজন সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের এভাবে মারপিট করা কোন ভাবেই কাম্য নয়।

এ ঘটনায় ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী সাঈদুর রহমান পিবিএ’কে জানান, সকালে আওয়ামীলীগের ২ নেতার সাথে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিসের উপ সহকারি প্রকৌশলী সমরজিত চন্দ্র ঘরামী’র কথা কাটাকাটি এবং মারপিটের খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে পুলিশ পাঠাই এবং ঘটনায় জড়িত এনামুল হক অপুকে আটক করি। থানায় মামলা হয়েছে। বাকীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা গা ঢাকা দিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ