ঢাকা, বৃহস্পতিবার 23 May 2019, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে যুক্ত হলেন মাশরাফি

দেশজুড়ে মহা আড়ম্বরে চলছে ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোর। এর আওতায় যে কোনো মডেলের ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে রেজিস্ট্রেশন করে ক্রেতারা পাচ্ছেন নতুন গাড়ি। রয়েছে ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এছাড়াও আছে কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার। ঈদ এবং বিশ্বকাপ ক্রিকেটকে সামনে রেখে ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের প্রোমোশনে যুক্ত হলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

এ উপলক্ষ্যে মাশরাফির সঙ্গে চুক্তি করেছে দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের শীর্ষ ব্র্যান্ড ওয়ালটন। সোমবার (২০ মে ২০১৯) রাজধানীর মিরপুরে ওই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক ও রেফ্রিজারেটর বিভাগের সিইও গোলাম মুর্শেদ, নির্বাহী পরিচালক আমিন খান, উপ নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আলম, অতিরিক্ত পরিচালক মিলটন আহমেদ ও শহীদুজ্জামান রানা এবং পাওয়ার প্লে কমিউনিকেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়ামুর রহমান পলাশ।

এই চুক্তির আওতায় বিশ্বকাপ ক্রিকেট চলাকালে ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের বিশেষ প্রমোশনে যুক্ত হলেন তিনি। 

এ বিষয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, ওয়ালটন বাংলাদেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড। ক্রিকেটের উন্নয়নে দীর্ঘদিন ধরে তারা কাজ করছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেট চলাকালে ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে যুক্ত হলাম। ভক্তদের জন্য শুভকামনা।

গোলাম মুর্শেদ বলেন, ৩০ মে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে শুরু হচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। যাতে অন্যতম শক্তিশালী দল বাংলাদেশ। বিশেষ করে আয়ারল্যান্ডে সদ্যসমাপ্ত ওয়ালটন ট্রাই-নেশন সিরিজ জিতে দারুণ ফর্মে আছে মাশরাফিরা। বিশ্বকাপের মাঝেই পড়েছে ঈদ। এই দুই বড় ইভেন্টকে উপলক্ষ্য করে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে যুক্ত হয়েছেন মাশরাফি। আশা করছি আমাদের এই উদ্যোগ ক্রেতাদের বিশ্বকাপ এবং ঈদের আনন্দে বাড়তি মাত্রা যোগ করবে।

ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহীদুজ্জামান রানা জানান, ২০১৯ সালে ২০ লাখ ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যার নাম দেয়া হয়েছে ‘১৯ এ ২০’। লক্ষ্যমাত্রা পূরণে গ্রাহকদের জন্য ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী, পরিবেশবান্ধব এবং সৃজনশীল ডিজাইনের শতাধিক মডেলের ফ্রিজ। এর মধ্যে রয়েছে ১০১ মডেলের ফ্রস্ট ও ২০ মডেলের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর, ১৬ মডেলের ফ্রিজার এবং ২ মডেলের বেভারেজ কুলার। 

ওয়ালটন ফ্রস্ট ফ্রিজের মধ্যে রয়েছে চোঁখ ধাধানো ডিজাইনের ৩৪ মডেলের গ্লাস ডোর, ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির ৪ মডেলসহ বিএসটিআই’র ‘ফাইভ স্টার’ এনার্জি রেটিং প্রাপ্ত ৩ মডেলের ফ্রিজ। গ্লাস ডোরে ২১টি সহ মোট ৩৮টি নতুন মডেলের ফ্রস্ট ফ্রিজ বাজারে ছাড়া হয়েছে। এর মধ্যে আছে ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসর সমৃদ্ধ গ্লাস ডোরের ৩৮০ লিটারের ৩টি নতুন মডেল। এসব ফ্রিজ স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই নিশ্চিন্তে চলবে।  

এদিকে ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ৬টি নতুন মডেল নন-ফ্রস্ট ফ্রিজ। এর মধ্যে ইনভার্টার ও গ্লাস ডোরের ৫৬৩ লিটারের সাইড বাই সাইড ডোরের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর গ্রাহক পর্যায়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। 

আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারি সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত করে ওয়ালটন প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়ছে। ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার, ন্যানো হেলথ কেয়ার ও এন্টি ফাংগাল ডোর গ্যাসকেট প্রযুক্তি ব্যবহার করছে ওয়ালটন। সম্প্রতি ফ্রিজ কম্প্রেসরের গ্যারান্টি সুবিধা আরো দুই বছর বাড়িয়ে ১২ বছরের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ওয়ালটন ফ্রিজে রয়েছে ১ বছরের রিপ্লেসমন্ট গ্যারান্টি সুবিধাসহ দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চয়তা। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ