ঢাকা, বৃহস্পতিবার 23 May 2019, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

৫২ নিষিদ্ধ পণ্যের নামে ক্ষুদ্র ব্যবসায়িদের হয়রানি ও জরিমানা বন্ধের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার : আদালতের নির্দেশে ৫২টি নিম্নমানের পণ্য বস্তায় বেধে সিল গালা করে দোকানের এক কোণায় ফেলে রাখার পর সেই পণ্যগুলোর ওপর ভ্রামমান আদালতের জরিমানা ও হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন বলেছেন, মানহীন যে ৫২টি পণ্য আদালত বাজারে বিক্রি নিষিদ্ধ করেছেন সেই পণ্যগুলো আমরা বস্তায় বেঁধে দোকানের একপাশে রেখে দিচ্ছি। কিন্তু তবুও কোথাও কোথাও দোকানদারদের জরিমানা করে হয়রানি করা হচ্ছে। আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালতের এসব হয়রানি বন্ধের দাবি জানাচ্ছি।
গতকাল বুধবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা মো. আকরাম খাঁ হলে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবি জানান তিনি। সাংবাদিক সম্মেলনে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির মহাসচিব জহিরুল হক ভুইয়া, মো: রবিউল্লাহ, মো: আলীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
হেলাল উদ্দিন বলেন, আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় পণ্যগুলো আমরা বাজারজাত করছি না। সেগুলো বস্তায় বেঁধে দোকানের এক কোনায় রেখে দেয়া হচ্ছে যেন কোম্পানিগুলো তাদের পণ্য ফেরত নিয়ে যায়। কিন্তু তারপরও কোথাও কোথাও সেই পণ্য ধরে ভ্রামমাণ আদালত জরিমানা করছেন। এটা আমাদের জন্য বেশ পীড়াদায়ক হয়ে দাঁড়িয়েছে।
তিনি বলেন, পণ্যগুলো আমরা টাকা দিয়ে কিনেছি তাই সেগুলো ফেলতে পারছি না। আবার দোকানেও রাখতে পারছি না ভ্রাম্যমাণ আদালত এসে জরিমানা করছে। তাই আদালতের কাছে আমাদের অনুরোধ নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহারের জন্য উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলোকে নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দিন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ