ঢাকা, সোমবার 22 July 2019, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ডের দাপুটে জয়, ম্যাচসেরা স্টোকস

সংগ্রাম অনলাইন : বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী ম্যাচে বেন স্টোকসের অলরাউন্ট নৈপুণ্যে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৪ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

বৃহস্পতিবার লন্ডনের দ্য ওভালে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে চার হাফসেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩১১ রান করে ইংল্যান্ড। ৩১২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৩৯.৫ ওভারে মাত্র ২০৭ রানে গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। খবর, পার্সটুড ‘র। 

বিশাল লক্ষ্য সামনে রেখে ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি। দলীয় ৩৬ রান ও অষ্টম ওভারের চতুর্থ বলে তার বল খেলতে গিয়ে জো রুটের কাছে ক্যাচ দেন এইডেন মার্করাম (১১)। পরে তার বলেই মঈন আলীকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস (৫)। আর্চারের করা দলীয় চতুর্থ ওভারের পঞ্চম বলে আঘাত পেয়ে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন প্রোটিয়া ওপেনার হাশিম আমলা।

জোফরা আর্চারের তৃতীয় শিকার হয়ে মাঠ ছাড়লেন রাসি ভন ডার ডুসেন। ৬১ বলে ৫০ করার পর মঈন আলীকে ক্যাচ দেন তিনি। ৭৪ বলে ৬৮ করা ওপেনার কুইন্টন ডি কককে জো রুটের ক্যাচে ফেরান লিয়াম প্লাঙ্কেট। আর মঈন আলীর বলে ব্যক্তিগত ৮ রান করে ফেরেন জেপি ডুমিনি। পরে রান আউট হন ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস।পরে আমলা ফিরলেও ২৩ বলে ১৩ করে প্লাঙ্কেটের শিকার হন তিনি। আর আন্দিলে ফেহলুকাইয়োর উড়িয়ে মারা শটে উড়ন্ত এক ক্যাচ ধরেন স্টোকস। ২৫ বলে ২৪ করে ফেহলুকাইয়ো আদিল রশিদের বলে আউট হন।

জফরা আর্চারের গতির সামনেই যেন অসহায় ছিলেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। তিনি ২৭ রানে তিন উইকেট নেন। আর লিয়াম প্লানকেট ও বেন স্টোকস পান দুটি করে উইকেট।   

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ বেন স্টোকস

এর আগে প্রথমে ব্যাট করে ইংল্যান্ড আট উইকেট হারিয়ে ৩১১ রান করে। ওভালে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে দিনের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে ওপেনার ওপেনার জনি বেয়ারস্ট্রোর উইকেট হারিয়ে বসে ইংল্যান্ড। স্পিনার ইমরান তাঁকে সাজঘরে ফেরান। এই ধাক্কা সামলে আরেক ওপেনার জেসন রয় এবং টেস্ট দলপতি জো রুট মিলে দলকে চাপমুক্ত করার চেষ্টায় খেলতে থাকেন। রুট এবং রয় দুজনই তুলে নেন ফিফটি। কিন্তু দুজনকেই খানিক পর বিদায় করেন আন্দাইল ফেহলুকেয়ো এবং কাগিসো রাবাদা। দ্রুত দুই ব্যাটসম্যান বিদায় নিলেও অধিনায়ক ইয়ন মরগান এবং বেন স্টোকস মিলে দলের স্কোরবোর্ডে রান যোগ করতে থাকেন। প্রোটিয়া বোলারদের বিপক্ষে নিজেদের সহজাত ব্যাটিং করে ফিফটি তুলে নেন তাঁরা। মরগান ৫৭ করে তাহিরকে উইকেট ছুঁড়ে দিলেও ক্রিজে থিতু হয়ে খেলতে থাকেন স্টোকস। নিচের দিকের ব্যাটসম্যানরা বড় স্কোর যোগ করতে না পারলেও বেন স্টোকসের ৮৯ রানের উপর ভরে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩১১ রানের পুঁজি পায় ইংলিশরা।

ইমরান তাহির ৬১ ও রাবাদা ৬৬ রানে দুটি করে উইকেট নেন। আর লুঙ্গি ৬৬ রানে তিন উইকেট পান। ব্যাট হাতে ৮৯ রানের ইনিংস খেলার পাশাপাশি বল হাতে ১২ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান বেন স্টোকস। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ