ঢাকা, শনিবার 22 June 2019, ৮ আষাঢ় ১৪২৬, ১৮ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ইরানে হামলার অনুমতি দিয়েও প্রত্যাহার ট্রাম্পের

২১ জুন, নিউইয়র্ক টাইমস : ইরানকে শায়েস্তা করতে সামরিক অভিযানের অনুমোদন দিলেও পরে ডনাল্ড ট্রাম্প তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন বলে খবর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম।

 হোয়াইট হাউজের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে গত বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্ক টাইমস সবার আগে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

ওইদিন খুব ভোরে যুক্তরাষ্ট্রের একটি গোয়েন্দা ‘ড্রোন’ (চালকবিহীন বিমান) গুলি করে ভূপাতিত করে ইরান। তাদের অভিযোগ ছিল, যুক্তরাষ্ট্রের ওই ড্রোন ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় হরমুজগান প্রদেশে কুহমোবারকের কাছে আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছিল।

অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, ড্রোনটি আন্তর্জাতিক আকাশসীমায় ছিল। ইরান ‘বিনা উসকানিতে’ হামলা করেছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমর প্রস্তুতি নিয়ে দুই দেশের মধ্যে এমনিতেই উত্তেজনা চলছিল। ইরান গুলি করে ড্রোন নামানোর পর তা নতুন মাত্রা পায়।  

আরকিউ-৪ গ্লোবাল হক ড্রোনটি ভূপাতিত করে ইরান ‘চরম ভুল’ করেছে বলে এক টুইটে হুঁশিয়ার করে ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়, ওই ঘটনার জবাব দিতে কয়েকটি ইরানি লক্ষ্যবস্তুতে পাল্টা হামলার পরিকল্পনা অনুমোদন করেছিলেন ট্রাম্প। সে অনুযায়ী প্রস্তুতিও শুরু হয়েছিল। কিন্তু নতুন আদেশে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তা থামিয়ে দেন। 

নিউ ইয়র্ক টাইমস বৃহস্পতিবার ইরানে সম্ভাব্য হামলা পরিকল্পনার খবর প্রকাশ করার পর যুক্তরাষ্ট্রের আরো কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম একই খবর দেয় বলে জানায় বিবিসি।

একজন জ্যেষ্ঠ প্রশাসনিক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, “জঙ্গি বিমান আকাশে ছিল, যুদ্ধজাহাজও সম্পূর্ণ প্রস্তুত ছিল। কিন্তু হামলা না করার নির্দেশ আসায় কোনো ক্ষেপণাস্ত্র আর ছোড়া হয়নি।”

ইরানি সেনাবাহিনী বা বেসামরিক নাগরিকদের হতাহত হওয়ার ঝুঁকি কমাতে শুক্রবার প্রথম প্রহরে ওই হামলা চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছিল বলে দাবি নিউ ইয়র্ক টাইমসের।

এ হামলা হলে তা হত মধ্যপ্রাচ্যে ট্রাম্পের তৃতীয় সামরিক অভিযান। এর আগে ২০১৭ ও ২০১৮ সালে ট্রাম্প সিরিয়ায় হামলা চালিয়েছিলেন।

বিবিসি লিখেছে, হামলার ওই পরিকল্পনা বাতিল হয়ে গেছে, নাকি এখনও হামলার সম্ভাবনা রয়ে গেছে- সে বিষয়টি স্পষ্ট হয়নি। ওই খবর নিয়ে হোয়াইট হাউজ বা পেন্টাগনের কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ