ঢাকা, মঙ্গলবার 10 December 2019, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

আইএইএ’র বিশেষ বৈঠক আহ্বানকে ‘তিক্ত কৌতুক’ বলল ইরান

আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: আমেরিকা ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আলোচনার জন্য আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র নির্বাহী পরিষদের যে বিশেষ বৈঠক আহ্বান করেছে তাকে ‘তিক্ত কৌতুক’ বলে অভিহিত করেছে ইরান। ভিয়েনায় জাতিসংঘের সদরদপ্তরগুলোতে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি কাজেম গারিবাবাদি বলেছেন, যে আমেরিকা নিজে গায়ের জোরে ও বেআইনিভাবে পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে সেই আমেরিকা এ সমঝোতার কথিত লঙ্ঘনের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করছে; এটি তিক্ত কৌতুক ছাড়া আর কিছু নয়।

গারিবাবাদি এক বিবৃতিতে বলেছেন, পরমাণু সমঝোতার প্রকৃত লঙ্ঘনকারী আমেরিকার পক্ষ থেকে এ বৈঠক আহ্বান থেকে বোঝা যায়, এ সমঝোতার ব্যাপারে গোটা বিশ্বের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে ওয়াশিংটন।

গতকাল (শুক্রবার) জাতিসংঘের পরমাণু তদারকি বিষয়ক সংস্থা- আইএইএ’র মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আলোচনার জন্য আগামী বুধবার ১০ জুলাই বিশেষ বৈঠকে বসবে সংস্থাটির নির্বাহী পরিষদ। এর কিছুক্ষণ আগে আইএইএ’তে নিযুক্ত মার্কিন প্রতিনিধি জ্যাকি ওলকট এ ধরনের একটি বৈঠক ডাকার আহ্বান জানান।

কাজেমাবাদি তার বিবৃতিতে আরো বলেন, আমেরিকা পরমাণু সমঝোতা থেকে বেআইনিভাবে বেরিয়ে যাওয়ার কারণে যে জটিল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে সে কারণেই ইরান আজ এ সমঝোতায় দেয়া নিজের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন স্থগিত রাখতে বাধ্য হয়েছে।

পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়া এবং ইউরোপের পক্ষ থেকে বারবার প্রতিশ্রুতি দেয়া সত্ত্বেও এ সমঝোতা বাস্তবায়ন না করার প্রতিক্রিয়ায় সম্প্রতি ইরান পরমাণু সমঝোতারই ২৬ ও ৩৬ নম্বর ধারা অনুসরণ করে এতে দেয়া নিজের কিছু প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন স্থগিত ঘোষণা করে। এর অংশ হিসেবে এরইমধ্যে তেহরান সমৃদ্ধ ইউরেনিয়ামের পরিমাণ বাড়িয়েছে। পাশাপাশি ইরান ঘোষণা দিয়েছে আগামী ৭ জুলাই’র মধ্যে ইউরোপ পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হলে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রাও বাড়ানো হবে। ইরানের এ ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আমেরিকা। অথচ দেশটি এক বছরেরও বেশি সময় ধরে পরমাণু সমঝোতা সম্পূর্ণ লঙ্ঘন করে চলেছে।- পার্স টুডে

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ