ঢাকা, বুধবার 10 July 2019, ২৬ আষাঢ় ১৪২৬, ৬ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

গণবিরোধী সরকার বলেই গ্যাসের দাম বাড়িয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার: গ্যাস ও বিদ্যুতের অযৌক্তিক দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, গণবিরোধী সরকার বলেই অযৌক্তিকভাবে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। এই সরকারের প্রত্যেক পদক্ষেপে এদের দুর্নীতি অদক্ষতা এবং এরা যে দেশ পরিচালনার ব্যাপারে অক্ষম এটা প্রমাণ পাচ্ছে।
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। করেছে তারা। এসময় উপস্থিত ছিলেন - গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া, নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বির খান, মেজর জেনারেল (অব.) আমসা আ আমিন, অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ। পরে মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি হাইকোর্ট মোড় ঘুরে ফের প্রেস ক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।
রেজা কিবরিয়া বলেন, এই সরকার অবৈধ সরকার এটার বৈধতা আমরা চ্যালেঞ্জ করছি বা করবো। গ্যাসের দাম এবং বিদ্যুতের দাম যারা বাড়িয়েছে আমাদের পকেট থেকে ৮ হাজার কোটি টাকা তারা নিচ্ছে। তার চেয়ে তারা যদি আট হাজার কোটি টাকার একটু কম চুরি করত তাহলে তাহলে আমাদেরকে এই টাকা দিতে হতো না। গ্যাসের দাম এবং বিদ্যুতের দাম বাড়তো না। এর দাম বাড়াতে হতো না। এই সরকারের প্রত্যেক পদক্ষেপে এদের দুর্নীতি অদক্ষতা এবং এরা যে দেশ পরিচালনার ব্যাপারে অক্ষম এটা প্রমাণ পাচ্ছে।
তিনি বলেন, সরকার বাপেক্স ও পেট্রোবাংলাকে আর্যকর করে রেখেছে। বিশ্ববাজারে গ্যাসের মূল্য কমেছে ৫০ শতাংশ এবং প্রতিবেশী দেশ ভারতে কমেছে ১০১ রুপি কিন্তু আমাদের দেশে বেড়েছে ৬৫ শতাংশ।
রেজা কিবরিয়া বলেন, আর কেউ না দাঁড়ালেও আমরা এখানে দাঁড়িয়েছি প্রতিবাদ করতে। যেখানেই আমরা পারি এই সরকারের বিরোধিতা করবো। আমরা এ সরকারের অন্যায়, অবিচার ও অত্যাচারের বিরোধিতা করবো। সেটা সম্ভব হলে সংসদ করবো, সংসদের বাইরেও করবো। একটি গণবিরোধী বাজেট এই গণবিরোধী সরকারের কাছ থেকে আমরা পেয়েছি। এই সরকার নির্বাচিত সরকার নয়। সেজন্য এটার বৈধতার চ্যালেঞ্জ করছি।
গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, হাসিনা সরকার অযৌক্তিকভাবে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। এই অযৌক্তিক দাম বাড়ানো কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। হাসিনামুক্ত বাংলাদেশ হলেই এদেশের জনগণের মুক্তি হবে। হাসিনামুক্ত বাংলাদেশ জনগণ চায়, সেই বাংলাদেশ আমরাও চাই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ