ঢাকা, বুধবার 10 July 2019, ২৬ আষাঢ় ১৪২৬, ৬ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বৃষ্টির বাগড়ায় শেষ হয়নি নিউজিল্যান্ডের ইনিংসও

স্পোর্টস রিপোর্টার : ম্যানচেস্টারে ভারত-নিউজিল্যান্ড প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচে বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল আগে থেকেই। তারপরও খেলা মাঠে গড়িয়েিেছল ঠিক মতোই। তবে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসের শেষদিকে শুরু হয় বৃষ্টি। আর এতেই বন্ধ হয়ে গেছে প্রথম সেমিফাইনালের খেলা। বৃষ্টির কারণে শেষ হয়নি নিউজিল্যান্ডের ইনিংসও। ২৩ বল বাকি থাকতেই মাঠ ছাড়ে দলটি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (রাত ১০টা) ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি। তবে বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে নিউজিল্যান্ড করে ২১১ রান। ম্যাচ বন্ধ হওয়ার সময় রস টেলর ৬৭ রানে ও টম ল্যাথাম ৩ রানে ব্যাট করছিলেন। সেমিফাইনাল ও ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে রেখেছে আইসিসি। তাই ভারত-নিউজিল্যান্ড খেলা আর শুরু না হলে আজ আবার হবে ম্যাচটি। গতকাল ভারতের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নিলেও শুরুটা ভালো হয়নি নিউজিল্যান্ডের। ভারতীয় বোলারদের বোরিং তোপে দলটি রানই তুলতে পারছিলনা। আবার প্রথম ৩.৩ ওভারে মাত্র ১ রানে ১ উইকেট হারিয়ে বসে দলটি। ভারতীয় পেসার জাসপ্রিত বুমারহ’র বলে বিরাট কোহলির হাতে সহজ এক ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেন ওপেনার গাপটিল। আউট হওয়ার আগে তিনি করেন মাত্র ১ রান। দলীয় ৭৯ রানে দলটি হারায় দ্বিতীয় উইকেট। এবার বিদায় নেন অপর ওপেনার হেনরি নিকোলাস। ভারতীয় স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজার বলে বোল্ড হওয়ার আগে হেনরি নিকোলস করেন ২৮ রান। তার ৫১ বলের ইনিংসটি ২ বাউন্ডারিতে সাজানো ছিল। দলীয় ৬৯ রানে প্রথম দুই উইকেট হারানো দলকে এগিয়ে নিতে দায়িত্ব নেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। শুরুতে বিপদে পড়া দলকে এগিয়ে নিতে জুটি করেছেন টেইলরের সাথে। এই জুটি ভাংগার আগে দলটি পৌঁছে যায় ১৩৪ রানে। উইলিয়ামসনের বিদায়ে ভাংগে এই জুটি। দু’জনে মিলে করেছেন ৬৫ রানের পার্টনাশীপ। চাহালের বলে জাদেজাকে ক্যাচ দিয়ে ৯৫ বলে ৬৭ রান করে বিদায় নেন কিউই অধিনায়ক। আর চলতি বিশ্বকাপের ষষ্ঠ ও প্রথম নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫০০ রানের খাতায় নাম লিখিয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপ ইতিহাসে দ্বিতীয় কিউই ব্যাটসম্যান হিসেব এই রেকর্ড গড়েছেন উইলিয়ামসন। তার আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচে ৫৪৭ রান করেছিলেন গাপটিল। এছাড়া ৫৪৮ রান নিয়ে কিউইদের মধ্যে বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় শীর্ষে ওঠেছেন উইলিয়ামসন। এক রান কম নিয়ে তার পেছনে আছেন গাপটিল। অধিনায়কের বিদায়ে ব্যাট করতে নেমে মোটেই ভালো করতে পারেননি জিমি নিশান ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।  জিমি নিশামও ১২ রানে পান্ডিয়ার বলে আর কলিন ডি গ্রান্ডহোমও ১৬ রানে কুমারের বলে আউট হলে ২০০ রানে প্রথম ৫ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। এর আগে ভুবনেশ্বর কুমারের ফুল লেংথ বল সুইপ করতে গিয়ে মিস করেছিলেন রস টেলর। বল লেগেছিল তার প্যাডে। এলবির জোরালো আবেদনে আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার। তবে টেলর চান রিভিউ। আর তাতেই ৫৬ রানে বেঁচে যান টেলর। শেষ পর্যন্ত নিউজিল্যান্ড রস টেইলর আর টম লাথামের ব্যাটে ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রান করার পর বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ