ঢাকা, বুধবার 10 July 2019, ২৬ আষাঢ় ১৪২৬, ৬ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ছাত্রলীগের সভাপতিসহ ৬ নেতার বিরুদ্ধে লিচু চুরি ও চাঁদাবাজির মামলা

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়াসহ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ৬ জন নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত লিচু চুরি ও চাঁদাবাজির মামলায় আগামী ১৬ জুলাই আসামীদের আদালতে হাজিরার জন্য সমন জারি করা হয়েছে। মামলার এজাহারে আসামীদেরকে দুর্দান্ত চাঁদাবাজ, দাঙ্গাবাজ, পরধনলোভী এবং আসামীরা সমাজে এমন কোনো খারাপ কাজ নেই যে তারা করতে পারে না বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
বাদী পক্ষের আইনজীবী মিজানুর রহমান বাদশা এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, নগরীর হাতেম খান এলাকার আব্দুল্লাহ ইবনে মনোয়ার নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে রাজশাহী সিএমএম আদালতে গত ১৫ মে এই মামলা দায়ের করেন। ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ছাড়াও এই মামলার অন্য আসামীরা হলেন- সহ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, আইন বিভাগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান আলী, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান কানন, উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান আশিক ও কর্মী মেহেদী হাসান বিজয়। এছাড়াও ক্যাম্পাসের বহিরাগত কিন্তু ছাত্রলীগ সভাপতির কক্ষে থাকেন মো. আকাশ নামের একজনকেও এই মামলায় আসামী করা হয়েছে। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, মামলার আসামীরা দুর্দান্ত চাঁদাবাজ, দাঙ্গাবাজ, পরধনলোভী। আসামীরা সমাজে এমন কোনো খারাপ কাজ নেই যে তারা করতে পারে না। বাদী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্ত গোদাগাড়ী বাগানের আম ও লিচু দুই মৌসুমের রাবি কর্তৃপক্ষের নিকট হতে লিজ গ্রহণ করে। আসামীরাসহ আরো ১৫/২০ জন গত ৭ মে ২০১৯ তারিখ রাত আনুমানিক ৮ টায় গোদাগাড়ী বাগানে অবৈধ অস্ত্র-সস্ত্রসহ মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে বাদীর কাছ থেকে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ সময় বাদীর সঙ্গে সাক্ষীরাও থাকায় কোনো অঘটন ঘটাতে না পেরে আসামীরাসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১৫/২০ জন বাদীকে হুমকি দেয়। তারা বাদীকে দুই দিনের মধ্যে দুই লাখ টাকা পৌঁছে দিতে বলেন। না হলে বাদীকে বাগান থেকে আম ও লিচু না পাড়তে দেয়ার হুমকি দেয়। পরে তারা বাগানের প্রায় দেড় লাখ টাকার লিচু চুরি করে। আসামীরা এখনো চাঁদার হুমকি অব্যাহত রেখেছে। বাদী গত ৯ মে ২০১৯ তারিখে মতিহার থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামলাটি গ্রহণ না করে আদালতে মামলা দায়েরের পরামর্শ দেন।
বাসের ধাক্কায় স্কুলশিক্ষক নিহত
রাজশাহীর পবায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলশিক্ষক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের দর্গাপাড়া  মোড় এলাকায় রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত শিক্ষক আবদুল হালিম (৩২) কশবা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হালিম মোহনপুর উপজেলার দেওয়ান বেড়াবাড়ি এলাকার মৃত এবারত আলীর ছেলে। আবদুল হালিম মোটর সাইকেলযোগে স্কুল আসছিলেন। পথে হরিপুর দর্গাপাড়া মোড়ের পাশে একটি বাসের ধাক্কায় রাস্তার উপর ছিটকে পড়েন। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ