ঢাকা, বুধবার 10 July 2019, ২৬ আষাঢ় ১৪২৬, ৬ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বছরে চার কোটি মোবাইল আমদানি হয় -যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী

সংসদ রিপোর্টার: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আমাদের দেশে এখন দেশি বিদেশি ১০টি কোম্পানি হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার নির্মাণ করছে। তারপরও প্রতিবছর আমাদের চার কোটি মোবাইল ফোন আমদানি করতে হয়। কিন্তু এরমধ্যে বাংলাদেশ ট্রেডিশনাল অর্থনীতি থেকে ডিজিটাল অর্থনীতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ফলে এখন আইটি সেক্টর থেকে আমরা এক বিলিয়ন ডলার রফতানি করছি।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে গতকাল সংসদের বিরোধীদল জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমামের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
জুনাইদ আহমেদ পলক আরো বলেন, বাংলাদেশ ট্রেডিশনাল অর্থনীতি থেকে ডিজিটাল অর্থনীতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। গত ১০ বছর আগে আমাদের ডিজিটাল অর্থনীতির অবস্থা ছিল মাত্র ২৬ মিলিয়ন ডলার। সরকারেরে নানা পদক্ষেপের ফলে এখন আইটি সেক্টর থেকে আমরা এক বিলিয়ন ডলার রফতানি করছি। এসময় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ডিজিটাল প্রযুক্তির ৯৪টি কম্পোনেন্টের উপর আমদানি শুল্ক এক শতাংশে নামিয়ে আনায় দেশি বিদেশি ১০টি কোম্পানি তাদের ফ্যাক্টরি সেট করেছে। বাংলাদেশে ওয়ালটন, সিম্ফনি যেমন, তেমনি কোরিয়ার স্যামসাং ও এলজিও ফ্যাক্টরি সেট করে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ নির্মাণ পরিকল্পনা স্থাপন করেছে।
সব জেলায় টেকনোলজি পার্ক হবে: মহিলা এমপি মোছাঃ খালেদা খানমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, দেশের সকল জেলায় হাই-টেক পার্ক/ সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। জমি ও প্রয়োজনীয় বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে জেলাগুলোতে এসব পার্ক নির্মাণ করা হবে।
সরকারি দলীয় সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলের (চাপাই নবাবগঞ্জ-১) লিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, ২০২৩ সালের মধ্যে প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সে একটি আইসিটি প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তবে তথ্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের কোন পরিকল্পনা তথ্য ও প্রযুক্তি অধিদপ্তরের নেই।
১০ হাজার ৮২১ জন আইসিটি শিল্পে: সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, বিশাল বেকার সমাজকে তথ্য প্রযুক্তির কর্মবাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় ৩৩ হাজার ১৮৮ জনকে আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। যার মধ্যে ১০ হাজার ৮২১ জনের আইসিটি শিল্পে কর্মসংস্থান হয়েছে। ই-গবর্নেন্স ও সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে ২ হাজার ৯৭৫ জন সরকারি কর্মকর্তাকে দেশে-বিদেশে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।
সাড়ে ১০ হাজার নারীর স্ব-কর্মসংস্থান: মহিলা এমপি বেগম শামসুন নাহারের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী পলক আরও জানান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ইতোমধ্যে ২১ জেলায় সাড়ে ১০ হাজার নারীর স্ব-কর্মসংস্থান এবং উদ্যোক্তা হিসাবে তৈরির জন্য সরকারি অর্থায়নে আউট সোর্সিং প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শেষ হয়েছে। এ ছাড়া ইতোমধ্যে ৪৯টি জেলায় সরকারি অর্থায়নে আউট সোর্সিং এর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ